মেজর জেনারেল (অব.) আমীন আহম্মদ চৌধুরীর ইন্তেকাল : প্রধানমন্ত্রীর শোক

    0
    5
    মেজর জেনারেল (অব.) আমীন আহম্মদ চৌধুরীর ইন্তেকাল : প্রধানমন্ত্রীর শোক
    মেজর জেনারেল (অব.) আমীন আহম্মদ চৌধুরীর ইন্তেকাল : প্রধানমন্ত্রীর শোক

    ঢাকা, ২০ এপ্রিল : বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক সামরিক কর্মকর্তা এবং নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) আমীন আহম্মদ চৌধুরী বীরবিক্রম ইন্তেকাল করেছেন। গতকাল শুক্রবার রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার গুলশানের বাসভবনে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি… রাজেউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী সন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আজ বাদ আছর গুলশান আজাদ মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে এবং পরে পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।
    পারিবারিক সূত্র জানায়, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে গুলশানের বাসভবনে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত ইউনাইটেড হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রাতে আমীন আহম্মদের মরদেহ রাখা হয় ইউনাইটেড হাসপাতালের হিমঘরে।
    আমীন আহম্মদ চৌধুরীর বড় ছেলে লুৎফুল আমীন জোনাক এ খবর নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন,  গত রাতে বাবা নিজের ঘরে বসে লেখালেখির কাজ করছিলেন। হঠাৎ তার বুকে ব্যথা অনুভূত হয় আর তিনি সংজ্ঞা হারান। সঙ্গে সঙ্গেই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
    সেনাবাহিনীতে থাকা অবস্থায় প্রেষণে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান এবং রাষ্ট্রদূত হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি। বাংলাদেশে প্রথম সাফ গেমস আয়োজনেও তার সম্পৃক্ততা ছিল। বিভিন্ন সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থাকার পাশাপাশি সংবাদপত্রে নিয়মিত লিখতেন আমীন আহম্মেদ। তিনি দুই ছেলে রেখে গেছেন।
    ১৯৪৬ সালে ফেনী জেলার ফুলগাজী উপজেলায় আমীন আহম্মদ চৌধুরীর জন্ম গ্রহণ করেন। সেনাবাহিনীতে তিনি কমিশন পান ১৯৬৬ সালের মে মাসে। ১৯৭১ সালে যখন বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু হয়, আমীন আহম্মদ তখন একজন তরুণ ক্যাপ্টেন। জেড ফোর্সের অধীনে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন তিনি।

    প্রধানমন্ত্রীর শোক
    বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) আমীন আহম্মদ চৌধুরী বীর বিক্রমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । আজ শনিবার এক শোক বার্তায় তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দেশের জন্য তার অসামান্য অবদানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি বলেন, তার মৃত্যুতে দেশ একজন দেশপ্রেমিক ব্যক্তি ও নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তিত্বকে হারালো। প্রধানমন্ত্রী মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here