বড়লেখায় প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে ফেঁসে গেলেন মোবাইল মেকার

0
63

বড়লেখা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখায় এবার গভীর রাতে উপজেরার পূর্ব দক্ষিণভাগ গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে অনৈতিক কাজের উদ্দেশ্যে ঢুকে পড়ে ফেঁসে গেল সেই বখাটে মোবাইল মেকানিক রুহুল আমিন (২২)। প্রতিবেশিরা তাকে ধরে বেঁধে ফেলেন।

গত ২৮ জুন উপজেলার দক্ষিণভাগ এনসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের সাথে অশালিন আচরণের কারণে পরদিন পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। এঘটনায় পুলিশের এসআই স্বপন কান্তি দাস তার বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে তাকে আদালতে সোপর্দ করেন। রুহুল আমিন উপজেলার দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপির পেনাগুল গ্রামের হেলাল উদ্দিন মামুনের ছেলে। পেশায় মোবাইল মেকানিক। তার উত্ত্যক্তের কারণে স্কুল কলেজের ছাত্রীরা অতিষ্ট।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণভাগ বাজারের মোবাইল মেকানিক রুহুল আমিন রোববার মধ্যরাতে পুর্ব দক্ষিণভাগ গ্রামের এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে পড়ে। ঘটনা আঁচ করতে পেরে প্রতিবেশিরা তাকে আটক করে উঠানে বেঁধে রাখে। অতঃপর ভোররাতে ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুল মজিদের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। অনৈতিক কাজের অপরাধে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নিকট তুলে না দিয়ে মেম্বারের জিম্মায় ছেড়ে দেয়ায় এলাকার সচেতন মহলে ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার (ইউপি সদস্য) মুহিবুর রহমান কামাল জানান, “মধ্যরাতে অনৈতিক কাজে রুহুল আমিনকে স্থানীয় লোকজন আটক করেন।” খবর পেয়ে তিনিও ঘটনাস্থলে যান। তার (আটক যুবকের) ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ তাকে জিম্মায় নিয়েছেন।

ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ জানান, এ ঘটনায় গৃহবধু লিখিত কোন অভিযোগ দিতে রাজি হননি। বিষয়টি স্থানীয় ময়মুরব্বি পর্যায়ে সমাধানের জন্য তিনি তাকে জিম্মায় নিয়েছেন। কোন মুচলেকা নিয়েছেন কি না জানতে চাইলে বলেন, নেননি, তবে নিবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here