Wednesday 19th of December 2018 01:41:00 AM
Thursday 22nd of November 2018 11:21:54 PM

বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের স্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা চলে গেলেন

জাতীয়, শেষ দিন ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের স্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা চলে গেলেন

মেয়ের কবরের পাশেই চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন 

নড়াইল প্রতিনিধিঃ মেয়ের কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন দেশের সূর্য্য সন্তান বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ল্যান্স নায়েক নূর মোহাম্মদ শেখের স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন্নেছা (৮০)।
বৃহস্পতিবার এশার নামাযের পর ৪র্থ জানাযা শেষে রাত ৮ টার দিকে গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার চন্ডিবরপুর ইউনিয়নের ধুড়িয়া গ্রামে ৪র্থ জানাযা শেষে তাঁকে দাফন করা হয়।
এর আগে দুপুর তিনটার দিকে ফজিলাতুন্নেছার লাশবাহী গাড়ীটি শহরের কুড়িগ্রামের নিজ বাসভবনের সামনে পৌঁছায়। এসময় পরিবারের সদস্য ও আত্মীয় স্বজনদের আহাজারীতে শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়।
বাদ আসর নড়াইল সরকারী ভিক্টোরিয়া কলেজের কুড়িরডোব মাঠে দ্বিতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা নামাযের পূর্বে জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা, পুলিশ প্রশাসনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল সদর) মোঃ শরফুদ্দিন ও মুক্তিযোদ্ধা সহ বিভিন্ন মহলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয় ।
দ্বিতীয় জানাযার নামাযে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) মোঃ ইয়ারুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব ) কাজী মাহবুবুর রশীদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ বাকাহীদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোঃ শরফুদ্দিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আজিম উদ্দিন রুবেল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডঃ এস এ মতিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলু, মাশরাফি বিন মর্তুজার পিতা গোলাম মর্তুজা স্বপন, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ ট্রাস্টের সদস্য সচিব মোঃ আজিজুর রহমান ভূইয়া সহ নানা শ্রেণীপেশার মানুষ।
পরিবারের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদের সন্তান শেখ মোঃ মোস্তফা কামাল। তিনি তাঁর মায়ের জন্য সকলের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন।দ্বিতীয় জানাযা শেষে মহান বীরের জন্মস্থান নূর মোহাম্মদ নগরে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ কমপ্লেক্স চত্বরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তৃতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। পরে ফজিলাতুন্নেছার স্মৃতি বিজড়িত ধুড়িয়া গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে এলাকাবাসীল অংশগ্রহণে ৪র্থ জানাযা শেষে মেয়ের কবরের পাশে দাফন চির নিদ্রায় শায়িত করা হয়। এর আগে বিজিবির সদর দপ্তরে প্রথম জানাযার নামায অনুষ্ঠিত হয়।
গ্রামের বাড়িটি বেশ কয়েক বছর আগেই একটি মাদ্রাসা দান করে যান ফজিলাতুন্নেছা। সেখানে একটি মসজিদও নির্মাণ করা হয়েছে।
ফজিলাতুন্নেছা বুধবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ৮০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি দুই মেয়ে, নাতি, নাতনি সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও শুভাকাঙ্খী রেখে গেছেন। এছাড়া নূর মোহাম্মদ শেখের প্রথম স্ত্রীর প্রথম স্ত্রীর একটি ছেলে ও একটি কন্যা সন্তান এবং দ্বিতীয় স্ত্রী ফজিলাতুন্নেছার ঘরে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।
ডায়াবেটিস, কোমরে ব্যাথা ও বার্ধক্যজণিত কারনে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ২৭ অক্টোবর ঢাকায় বিজিবির পিলখানা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে সুস্থ্য হয়ে ওঠেন। হবে হঠাৎ করে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে গত মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) ঢাকা সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীণ অবস্থায় ২১ নভেম্বর সন্ধ্যায় মারা যান।
বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখের সাথে ফজিলাতুন্নেছার বিয়ে হয় ১৯৬৪ সালে। বিয়ের ৭ বছর পর স্বামী মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে শহীদ হওয়ার পর স্বামীর স্মৃতি স্বরুপ দুটি কন্যা সন্তান নিয়ে বাকী জীবন কাটিয়ে দেন।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc