বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

    0
    39

    আমারসিলেট 24ডটকম,০৫অক্টোবর:কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় নির্মিত বাংলাদেশ-ভারত আন্তঃসীমান্ত বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন মনমোহন সিং।
    আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি ভেড়ামারা বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রে পৌঁছায়। এরপর সকাল পৌনে ১২টা দিকে ফলক উন্মোচনের মধ্য দিয়ে আন্তঃসীমান্ত বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে ভারত থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি কার্যক্রমের উদ্বোধন ও বাগেরহাটের রামপালে প্রস্তাবিত কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। অনুষ্ঠানস্থলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে ভিডিও কনফারেন্সে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও ভারতবাসীকে অভিনন্দন জানান।

    তিনি বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদানকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। ভিডিও কনফারেন্সে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও বাংলাদেশের এ উদ্যোগের প্রশংসা করেন। তিনি বাংলাদেশের জনগণসহ  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও এ প্রজেক্টে কর্মরত সব কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তত্ত্বাবধানেই বাংলাদেশ এ মাইলফলক অর্জন করেছে বলে উল্লেখ করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং । তিনি বলেন, ভারত ও বাংলাদেশ সব সময়ই একে অপরের ভালো প্রতিবেশি। এর পাশাপাশি আমাদের যৌথ উদ্যোগ অন্যান্য বিষয়েও আমাদের সম্পর্কের অগ্রগতি ঘটিয়েছে। এছাড়া প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তরস্থাপন করে সুন্দরবনের প্রাকৃতিক পরিবেশ বজায় রাখার পরামর্শ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।
    লাইন উদ্বোধনের আগে গত ২৭ সেপ্টেম্বর থেকেই ভেড়ামারায় বাংলাদেশ-ভারত বিদ্যুৎ সঞ্চালন কেন্দ্রের মাধ্যমে পরীক্ষামূলকভাবে ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি কার্যক্রম শুরু হয়। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ভারত থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হলেও প্রথম পর্যায়ে ১৭৫ মেগাওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। পরবর্তীতে আগামী নভেম্বর মাস থেকে পুরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশ আমদানি করবে।

    বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো দেশ থেকে সরকার বিদ্যুৎ আমদানি করছে। বর্তমান সরকার তার নির্বাচনী মেনিফেস্টোতে বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছিল। তারই সর্বশেষ সংযোজন হলো ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানি।প্রধানমন্ত্রী কুষ্টিয়া সফরে জেলা সার্ভার স্টেশন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, ভেড়ামারা থানা ভবনসহ মোট ২০টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন জানা যায় । এছাড়া কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মিরপুর থানা ভবন, কুষ্টিয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, ভেড়ামারা মহিলা ডিগ্রি কলেজ এবং শিলাইদহ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠকুর কলেজের একাডেমিক ভবনসহ বেশকিছু প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর উদ্বোধন করবেন তিনি। পরে বিকেল ৩টায় কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here