বিএনপি জোটের শাপলা চত্বরে সমাবেশ শুরু

    0
    7

    ঢাকা, ০৪ মে : রাজধানীর মতিঝিলের শাপলা চত্বরে আঠারো দলীয় জোটের সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন তিনি। আজ শনিবার বেলা সোয়া ৩টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে রওয়ানা হয়ে বেলা পৌনে ৪টার দিকে তিনি মতিঝিল শাপলা চত্বরের সমাবেশ মঞ্চে পৌঁছান। এ সময় সমবেত নেতাকর্মীরা তুমুল করতালি ও স্লোগানে স্লোগানে স্বাগত জানান তাকে। জবাবে মঞ্চে উঠেই সবাইকে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান বিএনপি প্রধান। এর আগে দুপুর ২টার দিকে কোরআন তেলওয়াতের মাধ্যমে শাপলা চত্বরের মঞ্চে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশ পরিচালনা করছেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক জয়নুল আবদিন ফারক। সমাবেশের সভাপতিত্ব করছেন ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক সাদেক হোসেন খোকা।
    সভাপতি ও প্রধান অতিথি ছাড়াও মঞ্চে আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও ১৮ দলীয় জোটের সভাপতিরা। বিএনপির অংগ সংগঠন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা সকাল ১১টা থেকে মঞ্চে গান পরিবেশন করছে। বিএনপির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক গাজী মাজাহারুল আনোয়ার, জাসাস সভাপতি আব্দুল মালেক, সেক্রেটারি মনির খান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করছেন।
    ১৮ দলের সমাবেশে যোগ দিতে এসে পল্টন মোড় ব্যাংক এশিয়ার সামনে বিএনপির সহযোগী সংগঠন যুবদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। আজ শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মিরপুর থানা ও পল্লবী থানা যুবদলের প্রায় ১০-১৫ জন নেতাকর্মী এ ঘটনায় আহত হয়েছেন। মিরপুর ও পল্লবী থানা যুবদলের নেতাকর্মীদের কথা কাটাকাটির জের ধরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়ার নির্বাচনী এলাকা মিরপুর-পল্লবী থানা যুবদল নেতাকর্মীদের মধ্যে এ হাতাহাতি, কথা কাটাকাটি ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়। এসময় আতঙ্কে সমাবেশে যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীরা পল্টন মোড়ের আজাদ প্রডাক্টসের গলিতে ছোটাছুটি করতে থাকে। পরে যুবদল নেতা মফিজুর রহমান মামুন এসে কতিপয় নেতাকর্মীকে ব্যাংক এশিয়ার মধ্যে নিয়ে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

    যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দেয়ার এবং যুদ্ধাপরাধে দণ্ডিত ও অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতাদের মুক্তির দাবির স্লোগান মুখে নিয়ে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের সমাবেশে যোগ দিয়েছে ইসলামী ছাত্রশিবিরকর্মীরা। আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে ইসলামী ছাত্রশিবিরের কয়েক হাজার নেতাকর্মী শাপলা চত্বরের সমাবেশস্থলে অবস্থান নিয়েছে। ‘অবৈধ আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও, রক্ত দেবো আরো দেবো, শেখ হাসিনাকে বিদায় দেবো, গোলাম আজম, নিজামী, মুজাহিদ, সাঈদীর মুক্তি চাই’- টানা এইসব স্লোগান দিয়ে যাচ্ছেন শিবিরকর্মীরা। শাপলা চত্বর থেকে দৈনিক বাংলা মোড় পর্যন্ত সড়কে যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের ছবি সম্বলিত বড় ডিজিটাল ব্যানারে ছেয়ে দিয়েছে তারা। ব্যানারগুলোতে অভিযুক্ত গোলাম আযম, মতিউর রহমান নিজামী, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মো. কামারুজ্জামান, মীর কাসেম আলী এবং দণ্ডিত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী ও আবদুল কাদের মোল্লার মুক্তির দাবি লেখা রয়েছে। সমাবেশ মঞ্চের সামনে বাম দিকে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা অবস্থান নিয়েছে। ডান দিকে অবস্থান নিয়েছে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। দৈনিক বাংলা মোড় পর্যন্ত ছাত্রদলের কয়েক হাজার কর্মী ‘খালেদা জিয়া এগিয়ে চলো, আমরা আছি তোমার সাথে’ স্লোগান দিচ্ছে। এছাড়া হলুদ-লাল ক্যাপ মাথায় ও গেঞ্জি গায়ে  যুবদল ও স্বেছাসেবক দলের কর্মীরা তাদের নির্ধারিত স্থানে অবস্থান নিয়েছে। মঞ্চের আরেক পাশে রয়েছে মহিলা দলের নেতাকর্মীরা। সকালে মঞ্চের সামনে আটক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের ছবি সম্বলিত দুইটি বেলুন ওড়ানো হয়।
    এদিকে রাজধানীর মতিঝিলে ১৮ দলের সমাবেশে শোডাউন করছেন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। মঞ্চের আশপাশের জায়গা দখল করে নিয়েছেন তারা। আজ শনিবার দুপুরের পর থেকেই তারা সমাবেশস্থলে আসতে শুরু করেন। এ সমাবেশকে ঘিরে নিজেদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরছে জামায়াত-শিবির। সমাবেশে হাজার হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত হয়েছেন। মঞ্চের ডান পাশের রাস্তায় জামায়াত শিবির অবস্থান নিয়েছে। সেখানে তারা দলের আটক নেতাদের মুক্তির দাবিতে ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে মিছিল করছেন। এছাড়াও নটরডেম কলেজের রাস্তার মাঝখানে মাঝখানে অবস্থান নিয়েছে জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা। মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে আটক জামায়াত নেতাদের ছবিসহ ব্যানার, ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ড নিয়ে সরকারবিরোধী শ্লোগান তুলছেন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। জামায়াতের সাবেক আমির গোলাম আযম ও নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছবি বেশি প্রদর্শিত হচ্ছে। মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারকাজে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দেয়ার দাবি তুলেছে জামায়াত শিবির। এছাড়াও দলের নেতারা বক্তব্য দেয়া শুরু করলে একযোগে শ্লোগান দিতে থাকেন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। মঞ্চে রয়েছেন জামায়াতের জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমদ, জামায়াতের এমপি হামিদুর রহমান আযাদ, কর্মপরিষদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম ভুঁইয়া, কর্মপরিষদ সদস্য শফিকুল ইসলাম মাসুদ এবং শিবিরের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল জব্বার।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here