বন্যার পানি না নামা পর্যন্ত সিলেটে কোন ট্রেন প্রবেশ করছে না

0
37
বন্যার পানি না নামা পর্যন্ত সিলেটে কোন ট্রেন প্রবেশ করছে না
সিলেতগামী ট্রেন মাইজগাও স্টেশনে আটকা পড়েছে।

জহিরুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার: সিলেট, ঢাকা,চট্টগ্রামের সকল ট্রেন মোঘলাবাজার,কুলাউড়া জংশন ও মাইজগাঁও স্টেশন থেকে ছাড়বে ও থামবে। বন্যার পানি সিলেট রেলষ্টেশন থেকে না নামা পর্যন্ত সিলেট বিভাগীয় ষ্টেশনে কোন ট্রেন প্রবেশ করবে না।

সিলেটে দ্বিতীয় ধাপের বন্যায় রেলষ্টেশন পানিতে ডুবে যাওয়ায় পরবর্তী নিদের্শনা না দেওয়া পর্যন্ত সিলেট ষ্টেশনের সকল প্রকার ট্রেন চলাচল ও যাত্রী সেবা বন্ধ করা হয়েছে।

ঢাকা ও সিলেট গামী রুটে আন্তঃনগর ট্রেন পারাবত, জয়ন্তীকা, উপবন আন্ত:নগর মাইজগাঁও ও কালনী এক্সপ্রেস, সুরমা মেইল মোঘলাবাজার পর্যন্ত চলাচল করবে।

চট্টগ্রাম ও সিলেট গামী রুটে আন্তঃনগর ট্রেন পাহাড়িকা, উদয়ন, কুলাউড়া থেকে চলাচল করবে।

শ্রীমঙ্গল ষ্টেশনের ভারপ্রাপ্ত ষ্টেশন মাষ্টার সাখাওয়াত হোসেন জানান, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষে নির্দেশনা জারি করেছেন বলা হয়েছে ”সিলেট গামী কালনী (৭৭৩) সুরমা মেইল মোগলাবাজার পর্যন্ত, সিলেট গামী পারাবত, জয়ন্তীকা, উপবন মাইজগাঁও পর্যন্ত চলাচল করবে। তবে নির্ধারিত সময় ঠিক থাকবে গন্তব্য ষ্টেশন থেকে ছেড়ে যাবে, তবে এ আদেশ পরবর্তী নির্দেশা না দেওয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।“

আজ ১৮ জুন শনিবার ১০ টার পর থেকে ধীরে ধীরে সিলেট ষ্টেশনের ভিতরে কোমর পরিমাণ পানি উঠাতে সাময়িকভাবে সিলেট ষ্টেশনের সকল প্রকার ট্রেন চলাচলা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে যা পরবর্তী নির্দেশনা দেওয়া পর্যন্ত।
এই তথ্য নিশ্চিত করেন, সিলেটের মাইজগাঁও ষ্টেশনের ষ্টেশন মাষ্টার মোঃ মনির হোসেন।

ঢাকাগামী কালনী এক্সপ্রেস ও জয়ন্তী এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা ছেড়ে গেছে। এদিকে সিলেট ষ্টেশন থেকে পাহাড়িকা ট্রেন কুলাউড়াতে নিয়ে আসা হয়েছে।যেটি রাতে উদয়ন হয়ে চট্রগ্রামে যাবে।

১৮ জুন শনিবার সকালের পারাবত আন্ত:নগর ট্রেন ঢাকা থেকে ছেড়ে আসলে দুপুর ১ টার দিকে সিলেটের মাইজগাঁও এসে থেমে যায় সেখান থেকে যাত্রীরা সিলেট না যেতে পেরে অনেকেই ঢাকার উদ্দেশ্যে আবার রওয়ানা দেন বিকাল ৪ টায়।
এতে অনেক যাত্রী সিএনজি ও লেগুনাতে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে মাইজগাঁও ষ্টেশন থেকে সড়ক পথে সিলেট হূমায়ূন চত্বর পর্যন্ত গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here