ফরিদপুরে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

    0
    7

    নূরুজ্জামান ফারুকী, বিশেষ প্রতিনিধিঃ  ফরিদপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর এক স্বামী আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের চর কৃষ্ণনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।খবর পেয়ে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) মো. ইমারত হোসেন জানান, কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলার হাট্টা হরিপুর এলাকার বিপ্লব মণ্ডল (২৫) গত ছয় বছর ধরে ফরিদপুরের কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের কাচারদিয়ার একটি ইট ভাটায় কাজ করেন। এই এলাকায় থাকার কারণে ইটভাটার পাশের এলাকার নূরুল ইসলামের মেয়ে লামিয়ার (২০) সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।প্রেমের সম্পর্কের এক পর্যায়ে গত তিন বছর আগে পারিবারিকভাবে বিপ্লব ও লামিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর লামিয়ার বাবা নূরুল ইসলাম নিজের বাড়ির পাশে একটি জায়গা কিনে মেয়ে ও জামাইকে থাকার জন্য বাড়ি করে দেন। সেখানেই বিপ্লব ও লামিয়া বসবাস করতেো।গত সোমবার লামিয়াকে নিয়ে বিপ্লব শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে আসেন। বুধবার দুপুরে লামিয়া তার মায়ের সঙ্গে অন্যের বাড়িতে চাল ভাঙতে যান। কিছু সময় পর বিপ্লবকে খাবার দিতে লামিয়া বাড়িতে আসেন।

    এরপর দীর্ঘ সময় পার হলেও লামিয়া তার মায়ের কাছে ফিরে না যাওয়ায় মা শিউলি বেগম বাড়িতে মেয়ের খোঁজে আসেন।তিনি দেখেন লামিয়া অচেতন হয়ে ঘরের মধ্যে পড়ে আছে। শিউলি বেগমের চিৎকারে পাশের বাড়ির লোকজন ছুটে এসে লামিয়াকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।মো. ইমারত হোসেন আরও জানান, এদিকে হাসপাতাল থেকে ফিরে সবাই বিপ্লবের খোঁজ করতে থাকেন। একপর্যায়ে বিপ্লবের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, তিনি ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলে আছেন। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

    লামিয়ার মা শিউলি বেগম অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার মেয়েকে বিপ্লব শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। পরে বিপ্লব ওর বাড়িতে গিয়ে নিজেও আত্মহত্যা করেছে। কী হয়েছিল ওদের তা আমরা বুঝতে পারিনি। দুটি প্রাণ শেষ হয়ে গেল। ওদের এখনো কোনো সন্তান হয়নি। এভাবে ওরা চলে গেলো।’ লামিয়ার বাবা নূরুল ইসলাম বলেন, ‘ওদের প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিয়ে বিয়ে দিয়েছিলাম। থাকার জন্য আমার বাড়ি পাশেই একটি জমি কিনে ঘর করে দিয়েছিলাম। কী কারণে এমন করলো বুঝতে পারলাম না।’এ বিষয়ে ফরিদপুর কোতোয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফুরকান হোসেন বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে স্বামী-স্ত্রীর কলহের জের ধরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর স্বামী বিপ্লব নিজেও আত্মহত্যা করেছেন। লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে।’