Tuesday 22nd of September 2020 07:58:33 PM
Thursday 31st of December 2015 10:19:01 AM

পৌর নির্বাচনঃআওয়ামীলীগ-১৭৮,বিএনপি-২২,অন্যান্য-২৮টি

জাতীয়, বিশেষ খবর ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
পৌর নির্বাচনঃআওয়ামীলীগ-১৭৮,বিএনপি-২২,অন্যান্য-২৮টি

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩১ডিসেম্বর ২৩৪ পৌরসভার মধ্যে ২২৮টির মেয়র পদের ফল পাওয়া গেছে,এর মধ্যে আওয়ামীলীগ বিজয়ী হয়েছে ১৭৮টি পৌরসভায়।আর ২২টি পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী জয় পেয়েছেন। বিদ্রুোহী আওয়ামীলীগ স্বতন্দ্র প্রার্থী ২৬টি ,জাপা-১, স্বতন্ত্র-৬,অন্যান্য-৩ টিতে বিজয়ী হয়েছেন।
দেশে বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ চলে।এর মধ্যে নরসিংদীর মাধবদী পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত করেছে কমিশন। এখানে নতুন করে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
নির্বাচনে অংশ নেওয়া দলগুলোর মধ্যে বিএনপি ও জাতীয় পার্টি নির্বাচনে মোট ২৬৮টি ভোটকেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ করেছে। আর নির্বাচন কমিশন মোট ১৪টি ভোটকেন্দ্রের ভোট স্থগিত করেছে। ২৩৪টি পৌরসভায় মোট ভোটকেন্দ্র ৩ হাজার ৫৫৫টি।৪টি পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছে। চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় সহিংসতায় ১জন নিহত হয়েছেন।
এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত সহিংসতায় আরও অন্তত অর্ধশত আহত হয়েছে। বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটেছে। নরসিংদীর মাধবদী পৌরসভার ভোট স্থগিত করেছে কমিশন। এ ছাড়া অনিয়মের পুলিশের ৫ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে।
নির্বাচন নিয়ে যেসব অভিযোগ পাওয়া গেছে তার মধ্যে রয়েছে ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স ছিনতাই, জোর করে ব্যালট পেপারে সিল দেওয়া, বিএনপির নির্বাচনী এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া। নির্বাচন নিয়ে বিএনপি একাধিক বার নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছে। বিভিন্ন সময়ে দলটি কমিশনে গিয়ে অনন্ত ৯৪টি ভোটকেন্দ্রে অনিয়ম, ভোট কারচুপির কথা উল্লেখ করেছে।
আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টিও ২৫টি পৌরসভার ১৭৪টি কেন্দ্রে অনিয়ম, এজেন্ট বের করে দেওয়া ও কারচুপির অভিযোগ করেছে। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বলেছে, বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়েছে। দলটির অভিযোগ পুলিশের বাড়াবাড়ির কারণে এই ঘটনাগুলো ঘটেছে।
৭টিতে বিএনপি ও ১টিতে আ’লীগের বর্জন
এজেন্টদের মারধর ও ব্যালট পেপারে নিজেরাই সিল মারার অভিযোগে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর, রাজবাড়ির পাংশা, চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া, রাউজান, সন্দ্বীপ ও ময়মনসিংহের গফরগাঁও, মাগুরা পৌরসভায় নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির পাঁচজন মেয়র প্রার্থী। আজ বুধবার সকালে পৌরসভার নির্বাচন চলাকালে তারা এই ঘোষণা দেন।
এদিকে অনিয়মের অভিযোগ এনে বরগুনা পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছে।
 একটি পৌরসভা ও ৮ পৌরসভার ১৪ কেন্দ্রে ভোট স্থগিত
অনিয়ম, সংঘর্ষ, পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, ভোটকেন্দ্রে গুলি, ব্যালট পেপারে জোর করে সিল দেওয়ার অভিযোগে আটটি পৌরসভার ১৪টি কেন্দ্রের ভোট নেওয়া স্থগিত করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং ও প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা এসব কেন্দ্রে ভোট নেওয়া স্থগিত করেন।
এর মধ্যে কুমিল্লার বরুড়া পৌরসভায় একটি ও হোমনা পৌরসভায় দুটি, চট্টগ্রামের চন্দনাইশ ও বাঁশখালী পৌরসভায় তিনটি, মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভায় দুটি, জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে একটি, বরগুনায় একটি, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের চৌমুহনী পৌরসভায় চারটি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হয়েছে।

 সাতকানিয়ায় ভোটকেন্দ্রের বাইরে সমর্থকদের গুলিতে নিহত ১
চট্টগ্রামের সাতকানিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় গুলিতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। অনিয়মের অভিযোগ তুলে সাতকানিয়া পৌরসভার নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি।
সকাল ১০টার দিকে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ ভোটকেন্দ্রের পূর্বপাশে কলেজ হোস্টেলের দক্ষিণ-পূর্বকোণে ওই সংঘর্ষ ও গুলির ঘটনা ঘটে।

সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc