পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশে নির্বাচনী প্রচারে নামছে আওয়ামী লীগ

    0
    5

    আমার সিলেট ডেস্ক,২২ আগস্ট : পরপর দুদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ দুটি মহসমাবেশের মাধ্যমেই মূলত শুরু হচ্ছে আওয়ামী লীগের আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা।আগামী ৩০, ৩১ আগস্ট শুক্র ও শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্মরণকালের বড় দুটি শোডাউন করবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। আর তার পরদিন পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশে নির্বাচনী প্রচারে নামছে আওয়ামী লীগের ১৬টি উচ্চ পর্যায়ের সাংগঠনিক টিম। দশ দিনব্যাপী এ সাংগঠনিক সফরে কেন্দ্রীয় নেতারা সরকারের সফলতা, বিরোধী দলের অপপ্রচারের জবাব, দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিষ্পত্তি ছাড়াও জনগণের কাছে আবারও ভোট প্রার্থনা করবেন।

    দলের একাধিক শীর্ষস্থানীয় নেতা এসব তথ্য জানা গেছে। দলীয় সূত্রে জানা যায়, জাতীয় শোক দিবসের মাসব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আগামী ৩০ আগস্ট শুক্রবার ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজন করেছে একটি মহাসমাবেশের।আয়োজকরা জানান, ওইদিন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে লাখো মানুষের সমাগম ঘটিয়ে বড় ধরনের শোডাউন করতে চায় তারা। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

    পক্ষান্তরে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম জানান, শোকের মাসব্যাপী কর্মসূচীর শেষ দিন৩১ আগস্ট শনিবার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব স্মরণে এক ছাত্র মহাসমাবেশের আয়োজন করেছে। আর এ ছাত্র সমাবেশেও প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার সম্মতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ সভনেত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে সফল করতে ইতোমধ্যে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

    এ বিষয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ৩০ আগস্ট শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত জনসভাকে সফল করতে ইতোমধ্যে বর্ধিত সভা, ঢাকার প্রতিটি এমপির সঙ্গেসভা করে মহানগর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ড নেতাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে ৩১ আগস্ট শনিবার ছাত্র সমাবেশ সফল করতে আজ বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির জরুরী বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়েছে।

    গত ১৮ আগস্ট দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে পহেলা সেপ্টেম্বর দেশব্যাপী সাংগঠনিক সফরের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সিদ্ধান্ত নেয় আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর ১৩ জন সদস্য এবং উপদেষ্টা পরিষদের ৩ জন সদস্যের নেতৃত্বে এ ১৬টি টিম মাঠে নামবে।তারা হলেন- সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, কাজী জাফর উল্যাহ, মোহাম্মদ নাসিম, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং ডা. দীপু মনি এ সাংগঠনিক টিমগুলোর নেতৃত্ব দেবেন।

    বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা এ কর্মসূচীর সমন্বয় করবেন।সাংগঠনিক সফরের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম জানান,সাংগঠনিক সফরের জন্য গঠিত টিমের খসড়া প্রস্তুত হয়ে গেছে। দু’একদিনের মধ্যে টিমগুলো চূড়ান্ত হয়ে গেলেইআমরা সারাদেশে সাংগঠনিক সফরে বের হবো। দলের কেন্দ্রীয় উপদপ্তর সম্পাদক এডভোকেট মৃণাল কান্তি দাসও জানান, সাংগঠনিক টিমের খসড়া চূড়ান্ত হয়েছে।

    দু’একটি বিষয়ে সংশোধনী শেষে তা চূড়ান্ত করা হবে।সাংগঠনিক টিমের নেতৃত্বে থাকা একাধিক নেতা জানান, দেশব্যাপী ১০ দিনের এ সাংগঠনিক সফর বেশ কিছুই স্যুকে সামনে রেখে অনুষ্ঠিত হবে। সারাদেশে সভা সমাবেশ, কর্র্মিসভা বর্ধিত সভার মাধ্যমে একদিকে যেমন সরকারের সাড়ে চার বছরের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে, তেমনি বিএনপি-জামায়াত-হেফাজতের মিথ্যা অপপ্রচারের জবাব ও প্রমাণসহ তুলে ধরা হবে দেশবাসীর সামনে।

    পাশাপাশি দেশের যেসব এলাকায় দলের মধ্যে কোন্দল-বিবাদ রয়েছে তা নিরসন, সম্ভাব্য প্রার্থীদের অবস্থান সম্পর্কেও খোঁজখবর নেয়া হবে। সাংগঠনিক সফর শেষে প্রত্যেক টিমের প্রধান লিখিতভাবে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট দলের প্রধান শেখ হাসিনার কাছে জমা দেবেন, দলীয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here