পবিত্র কোরআন শরিফে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় মৃত্যুদণ্ড দাবি হানিফের

    0
    3

    ঢাকা, ০৬ মে : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ পবিত্র কোরআন শরিফে অগ্নিসংযোগ করায় হেফাজতের বিরুদ্ধে মামলা করে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

    পবিত্র কোরআন শরিফে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় মৃত্যুদণ্ড দাবি হানিফের
    পবিত্র কোরআন শরিফে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় মৃত্যুদণ্ড দাবি হানিফের

    আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, হেফাজতে ইসলাম কোনো ধর্মীয় দল নয়। ওরা জামায়াত-শিবিরের বি-টিম হিসেবে কাজ করছে। গতকাল রাতে রাজধানীতে হেফাজতে ইসলামের অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
    মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, কোনো ধর্মীয় দল ধর্মের দোহাই দিয়ে পবিত্র কোরআন শরিফ ও ইসলামি বই পোড়াবে; এটা কোনো মুসলমান বিশ্বাস করতে পারে না। এদের নৈরাজ্য আর সহ্য করা হবে না। গত রাতে তাদের মতিঝিল থেকে যেভাবে বিতাড়িত করা হয়েছে, সেভাবে সব জায়গায় তাদের প্রতিহত করা হবে।
    প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, যখন বায়তুল মোকাররমের স্বর্ণের দোকান লুটপাট হচ্ছে, হাউস বিল্ডিংসহ পল্টন, গুলিস্তানের ফুটপাতের দোকানগুলো পোড়ানো হচ্ছে, ঠিক সেই মুহূর্তে খালেদা জিয়া দলীয় নেতা-কর্মীদের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের পাশে দাঁড়াতে না বলে হেফাজতের পাশে দাঁড়াতে বলেছেন। এর মাধ্যমে তিনি হেফাজতের সন্ত্রাসী কার্যক্রম আরও উসকে দিয়েছেন। এটা জাতির জন্য লজ্জাকর। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তিনি বলেন, হেফাজতের ঢাকা অবরোধ ও খালেদা জিয়ার ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম সবগুলোই পরিকল্পিত। বিএনপির প্রশ্রয় না পেলে হেফাজত কখনো এভাবে সারা দেশে ধ্বংসযজ্ঞ চালাতে পারত না। সুতরাং এ সহিংসতার দায় বিরোধীদলীয় নেতা কখনো এড়াতে পারেন না।
    সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here