নড়াইলে জেলা আ’লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

    0
    9

    নড়াইল প্রতিনিধিঃ  নড়াইলে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোসের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় পৌরসভার কুড়িগ্রামের নিজ বাড়িতে নড়াইল গ্রামের ফজর আলী খন্দকারের ছোট পুত্র সুলতান আলী খন্দকার ও সামছুল আলম এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় তার পরিবারের সৈয়দ খন্দকার,রিন্টু খন্দকার, হাজেরা বেগম,জোসনা বেগম উপস্থিত ছিলেন।
    সুলতান আলী খন্দকার লিখিত বক্তব্যে বলেন, কুড়িগ্রাম মৌজার ৫ একের ৬০ শতক আমাদের তিন শরিকের জমি নিয়ে গণপূর্ত অফিসের ইমারত বিভাগের সাথে মামলায় আইনজীবি হিসাবে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস কে নিয়োজিত করি। দেওয়ানী মামলা নং ৪৭৯/১৯৮০। এই মামলাটি চলমান না থাকায় মামলাটি খারিজ হয়।
    যেহেতু এই মামলায় আমাদের পূর্ববর্তী শরিকগন সুবাস বোসকে আইনজীবি হিসেবে রেখেছিলেন। সেহেতু পরবর্তিতে আমরা স্বত্তের মোকদ্দমা করার জন্য ১৯৯৯ সালে এ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস কে আইনজীবি হিসেবে থাকার জন্য অনুরোধ করি এবং ফাইলপত্র দিয়ে আসি। তিনি (সুবাস বোস) আমাদের ২/৩ মাস আজ করছি কাল করছি করে ঘুরাতে থাকেন এবং শেষ পর্যন্ত সুবাস বোস আমাদের আইনজীবি হিসেবে থাকেন নাই। পরবর্তিতে গণপূর্ত অফিসের ইমারত বিভাগ উচ্চ আদালতে (১৪৫/২০০১ নং) আপিল করে। তখন এক তৃতীয়াংশ জমি না দেওয়ার কারনে এ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস উক্ত মামলায় আমাদের পক্ষের আইনজীবি না হয়ে বিপক্ষের আইনজীবি হন। এবং আপিল করায় উক্ত জমির বিষয়ে রিমান্ড হিসাবে নি¤œকোর্টে (সিনিয়র এ্যাসিস্ট্যান্ট জর্জকোর্ট, মামলা নং ১৬৫/২০১৬) পূনর্বিবেচনায় যায়।
    সুবাস বোস আমাদের পক্ষের আইনজীবি থাকা কালে মামলার খুটিনাটি,গোপন তথ্য,জরুরী কাগজ দলিল পত্র তার কাছে ছিল। বিধায় সকল গোপন ও প্রয়োজনীয় তথ্য সে জানে। তাই আমরা ক্ষতিগ্রস্থ হই। বার বার অনুরোধ করা সত্ত্বেও তিনি (এ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস) বিবাদী পক্ষ থেকে সরে দাড়াননি।
    যে কারনে ২৮/১১/২০১৯ তারিখে আমি বিষয়টির সূষ্ঠু সমাধান বা বিচারের জন্য বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে আবেদন করি। যার পরিপেক্ষিতে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সুবাস বাবুকে শোকজ করে। বার কাউন্সিলের নোটিশ পেয়ে তিনি ক্ষিপ্ত হন এবং আমাকে হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি আমার আত্বীয়স্বজনকে ও নানাবিধ ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন।তিনি (এ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস) ক্ষমতাশালী। আমি আমার পরিবার ও পরিজন নিয়ে নিরাপত্তাাহীনতায় ভুগছি।
    যেহেতু আমরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি সেহেতু অন্যরা যাতে এরকম আইনজীবি দ্বারা আর যাতে কেউ ক্ষতিগ্রস্থ না হয় এবং আমাদের নিরাপত্তার কথা ভেবে সব কিছুর প্রতিবাদ স্বরুপ আজকের এই সম্মেলন করা।