Wednesday 21st of October 2020 10:04:24 AM
Tuesday 23rd of June 2015 06:19:02 PM

নবীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর বেলাল হত্যা মামলায় আরো দু’ আসামী কারাগারে

বৃহত্তর সিলেট ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
নবীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর বেলাল হত্যা মামলায় আরো দু’ আসামী কারাগারে

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৩জুন,মতিউর রহমান মুন্নাঃ নবীগঞ্জের চা ল্যকর সন্ত্রাসীদের হাতে প্রকাশ্যে সিএনজি শ্রমিক বেলাল হত্যাকান্ডের মামলার আরো দু’ আসামী কারাগারে। গত সোমবার ওই মামলায় হবিগঞ্জের বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রিট আদালতে আত্মসমর্পন করলে বিজ্ঞ আদালতের বিচারক তাদেরকে জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরনের নির্দেশ প্রদান করেন। তারা হলেন নবীগঞ্জ পৌর এলাকার নোয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে আব্দুর রকিব (৩০) ও বাউসা গ্রামের আরমান আলীর ছেলে আলমগীর মিয়া (৩২)।

উল্লেখ্য, গত ২৬ এপ্রিল বিকালে শহরের শেরপুর রোডস্থ মা-হোটেল ও মাইওয়ান ব্যবসা প্রতিষ্টানের সামনে দাড়ানো অবস্থায় প্রতিপক্ষ ছাত্রদল নেতা রায়েছ চৌধুরী ও সামছু মিয়া’র নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী সিএনজি শ্রমিক বেলাল মিয়াকে কুপিয়ে হত্যা করে। নির্মম এ হত্যাকান্ডে নিহতের পিতা সাবেক পত্রিকার হকার মোঃ ফারুক মিয়া বাদী হয়ে বিগত ২৮ এপ্রিল নবীগঞ্জ থানায় ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ইতিপুর্বে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে এবং ৭ জন আসামী আদালতে আত্মসর্মপন করলে কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে। বাকী ১৯ জন আসামী  পুলিশের গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে রয়েছে।

এর মধ্যে নোয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে আব্দুর রকিব ও বাউসা ইউপির বাউসা গ্রামের আরমান আলীর ছেলে আলমগীর মিয়া গত সোমবার হবিগঞ্জে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেশমা বেগমের আদালতে হাজির হয়ে জামিনের প্রার্থনা করেন। বিজ্ঞ আদালত উভয় পক্ষের কৌশলীদের বক্তব্য শুনে তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরন করেন। তবে এখনও বেলাল হত্যার প্রধান আসামীসহ ১৭ জন আসামী পলাতক রয়েছে। পুলিশ তাদের গ্রেফতারে নানা স্থানে অভিযান অব্যাহত রেখেছে বলে সুত্রে জানাগেছে।

এদিকে সিএনজি শ্রমিক নেদৃবৃন্দ বেলাল হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষনা দিয়েছেন। নিহত বেলাল মিয়া পৌর এলাকার নোয়াপাড়া গ্রামের সিএনজি ম্যানাজার ও সাবেক হকার ফারুক মিয়ার ছেলে এবং নবীগঞ্জ সংবাদপত্র এজেন্ট মোশাহিদ আলী ও মিয়াধন মিয়ার ভাতিজা। ঘটনার ৫৬দিন অতিবাহিত হলেও নিহতের পরিবারে এখনও চলছে কান্নার রুল।

সোমবার সন্ধ্যায় নিহতের বাড়িতে গেলে নিহত বেলালের মা ও সদ্য বিবাহিতা বিধবা স্ত্রী’র আহাজারিতে এক হৃদয় বিদায়ক দৃশ্যের অবতারনা ঘটে। ছেলেকে ফিরে পেতে মা ও স্বামীকে ফিরে পেতে স্ত্রী’র বিলাপ চলছে নিহতের বাড়িতে। এছাড়া অপর আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন নিহতের পরিবার।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc