ছাত্রশিবিরের ‘গোপন নিয়ন্ত্রণ কক্ষের’ সন্ধান পেয়েছে পুলিশ

    0
    5

    রাজশাহীতে ছাত্রশিবিরের ‘গোপন নিয়ন্ত্রণ কক্ষের’ সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। ছাত্রাবাসের  আড়ালে শিবির সন্ত্রাসী অভিযান পরিচালনায় এটিকে ব্যবহার করত বলে মনে করছে পুলিশ। হামলায় নেতৃত্ব ও পুলিশের কাজে বাধাদানের অভিযোগে জামায়াতপন্থী ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
    রাজশাহীর বিনোদপুর এলাকায় ‘মহানন্দা ছাত্রাবাস’ নামে আস্তানাটি অবস্থিত। গতকাল সোমবারদুপুরে মহানগর পুলিশ ও র‌্যাবের একটি যৌথ দল সেখানে অভিযান চালায়। এরপর ছাত্রাবাসটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।
    পুলিশ জানায়, ছাত্রশিবির এই ছাত্রাবাসটিতে তাদের গোপন নিয়ন্ত্রণকক্ষ স্থাপন করেছিল। সেখান থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ নগরের বিভিন্ন এলাকায় সন্ত্রাসী অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছিল। সর্বশেষ এই আস্তানা থেকে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে হামলা চালিয়ে দুজনের হাত ও পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়।
    আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে হামলায় যে ধরনের মুখোশ ব্যবহার করা হয়েছিল, একই ধরনের মুখোশ এ আস্তানা থেকেও পাওয়া গেছে। এ ছাড়া পুলিশ সেখান থেকে লাখ লাখ টাকা চাঁদা আদায়সহ আর্থিক লেনদেনের খতিয়ান বই, বিপুল পরিমাণ ধর্মীয় পুস্তিকা, কম্পিউটার, সিডিসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করেছে।

    অভিযান শেষে বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ও সেটি সিলগালা করে রাখার নির্দেশ দেন।
    মহানগর পুলিশ কমিশনার এস এম মনির-উজ-জামান বলেন, এই নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকেই শিবির তাদের সব ধরনের নাশকতার অভিযান চালাত বলে তাঁরা মনে করছেন।
    নগরের রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ বি এম রেজাউল ইসলাম জানান, সাম্প্রতিক সময়ে জামায়াতের বিভিন্ন অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া, পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধাদানের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছিল।
    এ মামলায় পবা উপজেলার হড়গ্রামের ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

     

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here