চেয়েছিলাম একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনঃখালেদা জিয়া

    0
    4

    আমারসিলেট24ডটকম,০৪ফেব্রুয়ারীঃ তামাশার নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত এই সরকারের বেশির ভাগ মন্ত্রী-এমপি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। এটি অবৈধ সংসদ। সুতরাং এই সরকারের মুখে জনগণের কথা শোভা পায় না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

    আজ মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।খালেদা জিয়া বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র নেই। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রকে হত্যা করে ক্ষমতায় বসেছে এবং তারা ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করতে চাচ্ছে। এ সরকারের অধিকাংশ মন্ত্রী-এমপি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নন। আওয়ামী লীগের মুখে গণতন্ত্র শোভা পায় না।’

    সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আছেন-বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.আর এ গনি, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, এম কে আনোয়ার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, লে.জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ, সারওয়ারী রহমান, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ড.আব্দুল মঈন খান।

    বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড.ওসমান ফারুক, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, অধ্যাপক এম এ মান্নান, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, রিয়াজ রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ ও রিয়াজ রহমান।

    বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, আব্দুল্লাহ আল নোমান, ফজলুর রহমান পটল, সেলিমা রহমান, শমসের মবিন চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, মিজানুর রহমান মিনু, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী।

    ১৯ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে জামায়াতের শুরা সদস্য অ্যাডভোকেট মশিউল আলম, বিজেপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমদ, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান ড.কর্নেল (অব) অলি আহমদ, ইসলামী ঐক্য জোটের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ নেজামী, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহীম, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান শফিউল আলম প্রধান, এনডিপির সভাপতি শেখ শওকত হোসেন নীলু, খেলাফত মজলিশের সভাপতি মাওলানা ইসহাক, এনডিপির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্তুজা, ন্যাপের সভাপতি জেবেল রহমান গানি, মুসলিম লীগের সভাপতি এইচ এম কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবদুল মোবিন, বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান ও ডেমোক্রেটিক লীগ সভাপতি সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি।তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্র নেই । গণতন্ত্রকে হত্যা করে এই সরকার ক্ষমতায় বসেছে। তারা প্রতিদ্বন্দ্বী সকল দলকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে।

    ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ৫ ভাগ ভোটও পড়েনি দাবি করে বেগম জিয়া বলেন, এই নির্বাচনে যারা অংশ নিয়েছে তাদের মধ্যে আগেই আসন ভাগাভাগি হয়েছে। আমাদেরকেও আসন দিতে চেয়েছিল। কিন্তু আমরা তা চাইনি।বেগম জিয়া বলেন, আমরা চেয়েছিলাম একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here