ঘাষ মারার বিষ স্প্রে করে পুড়িয়ে দিয়েছে ৪ বিঘা ইরিধানের জমি

0
122
ঘাষ মারার বিষ স্প্রে করে পুড়িয়ে দিয়েছে ৪ বিঘা ইরিধানের জমি
ঘাষ মারার বিষ স্প্রে করে পুড়িয়ে দিয়েছে ৪ বিঘা ইরিধানের জমি

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের শার্শায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ৪ বিঘা জমিতে লাগানো ইরিধানের ক্ষেতে ঘাষ মারা ঔষধ স্প্রে করে পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাতের কোন এক সময়ে দূর্বৃত্তরা শার্শা উপজেলার কাশিয়াডাঙ্গা মাঠে সিরাজুল ইসলাম (৫৫) এর ৪ বিঘা জমিতে ঘাষ মারা ঔষধ স্প্রে করে। যার কারনে জমিতে লাগানো ইরি ধানের চারা পুড়ে নষ্ট হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক সিরাজুল ইসলাম শার্শার দক্ষিন বুরুজবাগান গ্রামের মৃত গোলাম নবীর ছেলে। এ ব্যাপারে কৃষক সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে সন্দেহ করে কাশিয়াডাঙ্গা গ্রামের ২ জনের নামে শার্শা থানায় একটি অভিযোগ করেছে।
কৃষক সিরাজুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে কাশিয়াডাঙ্গা মাঠে ৪ বিঘা জমিতে চাষ-আবাদ করে আসছি। এবারও তিনি তার ৪ বিঘা জমিতে প্রায় ১ মাস আগে ইরিধান রোপন করেন। গত ১ মাসে তার ধান সবুজে পরিনত হয়। বুধবার ৯ ফেব্রুয়ারি দুপুরে মাঠে গিয়ে দেখেন তার ৪ বিঘা জমির ইরিধানের চারা পুরোটাই পুড়া। এ সময় আসেপাসের কৃষকেরা দেখে বলেন রাতের কোন এক সময় ঘাষমারা ঔষধ স্প্রে করার কারনে ধানগাছ পুড়ে গেছে। কৃষক সিরাজুল ইসলাম জানান তার জমিতে এ পর্যন্ত প্রায় ৪০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, কাশিয়াডাঙ্গা গ্রামের মনিরুজ্জামান ও ফারুক হোসেন নামে দুই ব্যাক্তি পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তার জমিতে ঘাষ মারা ঔষধ স্প্রে করেছে। এর আগের শত্রুতা করে সিরাজুলের ঐ জমিতে আমন ধানে ঘাষ মারা বিষ এস্প্রে করে ক্ষতি সাধন করেন। শত্রুতা করে ১ বিঘা জমির কলাসহ গাছ কেটে দেন। কৃষক সিরাজুল ইসলাম এ ঘটনায় সুষ্ঠ তদন্ত করে সু-বিচারের জন্য জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন খান জানান, এমন কাজ জঘন্যতম অপরাধ। তিনি বলেন এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে দেখে এসেছে। যা তদন্ত করে অপরাধী যেই হোক তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here