কিছু জায়গায় বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষঃচলছে ভোট গণনা

    0
    1

    আমারসিলেট24ডটকম,২৩মার্চঃ চতুর্থ দফা উপজেলা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সমাপ্ত হয়েছে। তবে দেশের বেশ কিছু জায়গায় বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এর প্রেক্ষিতে কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। ৯১টি উপজেলায় সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ চলে। এখন চলছে ভোট গণনার কাজ। ইতিমধ্যে বেসরকারি ভাবে কিছু কিছু কেন্দ্রের আংশিক গণনার কাজ ও শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সারা দেশে  মোট ১৮টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে  জানা গেছে।

    পটুয়াখালী সদরের ৪টি এর মধ্যে ১১নং শেরে বাংলা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, ৫৪নং পূর্ব মরিচবুনিয়া দারুচ্ছান্নাত দাখিল মাদরাসা, ৬৩নং মধ্য কেওয়াবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যায়ল, ৭৭নং বলাইকাটি রেজিস্টার প্রাথমিক বিদ্যালয়। কেন্দ্রগুলো বন্ধের কারণ জোরপূর্বক ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে ভোট দেয়।
    পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার ৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ২নং কেন্দ্র, ৪নং কেন্দ্র, ২১নং কেন্দ্র ও ৬৫নং কেন্দ্র। ঢাকার ধামরাই উপজেলার ৪৩নং আমরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। কুমিল্লার বড়ুরা উপজেলার দুইটির মধ্যে ১নং বাঘমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫২নং পূর্ব নলুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
    মন্সিগঞ্জের গজারিতে ৭টি কেন্দ্রর মধ্যে বালুয়াকান্দি ডা. আব্দুল গাফফার স্কুল এন্ড কলেজ, ১৩নং আলীপুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৭নং পৈক্ষাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৮নং লক্ষ্মীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২০নং কাজীপুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গজারিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, বাঘাইয়াকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

    অপরদিকে, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় ষেলবরষ মাইজবাড়ী সরকারী প্রাথমিক ভোট কেন্দ্রে ৩ ঘণ্টা স্থগিত থাকার পর পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ রোববার সকাল ১১টার দিকে ওই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। পরে বিকেল তিনটার দিকে তা আবারো শুরু হয়।
    এদিকে, একই উপজেলায় পায়কুরহাটি ইউনিয়নের বালিজুড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here