কানাইঘাটে ১৮ দলের ১ম দিনের হরতাল পালিত

    0
    32

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবর,জসীম উদ্দিন :নির্দলীয়  সরকারের দাবীতে ১৮ দলীয় জোটের ডাকা টানা ৬০ ঘন্টার হরতালের প্রথম দিন কানাইঘাটে কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই সর্বাত্নক হরতাল পালিত হয়েছে। সকাল ৯ টার দিকে মোশাহিদ সেতুর বাইপাস সড়কে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে দূর থেকে দূর্বৃত্তরা পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারলে পুলিশের দাওয়ায় তারা পালিয়ে যায়। এছাড়া কানাইঘাট বুরহান উদ্দিন সড়কেরমনসুরিয়া মাদ্রাসা পয়েন্টে সহ জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়ে আশপাশ এলাকায় পিকেটিং মিছিল করে। বেলা ১টার দিকে শিবিরের কিছু উত্তেজিত নেতাকর্মী একটি ফোরষ্ট্রোক (সি.এন.জি) গাড়ীর গ্লাস ভাংচুর করে।
    হরতালে নাশকতা এড়াতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ পৌর শহর সহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টহল দিতে দেখা যায়। পুলিশের সাথে হরতাল সমর্থন কারীদের কোথাও সংঘর্ষের ঘটনার খবর পাওয়া যায় নি। এদিকে হরতালের সমর্থনে ভোর থেকে বিএনপি অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী পৌর শহর সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে শক্ত অবস্থান নিয়ে পিকেটিং করতে দেখা গেছে।দুপুর ১২ টায় মামুনুর রশীদ মামুন সমর্থিত বিএনপির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী পল্লী বিদ্যুৎ পয়েন্ট থেকে হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের করে। মিছিলটি পৌর শহর প্রদণি শেষে বিএনপির কার্যালয়ে গিয়ে পথসভায় মিলিত হয়। ১৮ দলীয় জোটের সচিব মুফতি মাওঃ এবাদুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং থানা বিএনপির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হাজী জসিম উদ্দিনের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর
    বিএনপির সভাপতি হাজী ইফজালুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ফরিদ আহমদ, থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কাউন্সিলর শরীফুল হক, বিএনপি নেতা কাউন্সিলর রহিম উদ্দিন ভরশা, আজিজুল হক, মখলিছুর রহমান, উমর আলী, জমিয়ত নেতা মাওঃ হেলাল আহমদ, খেলাফত মজলিস নেতা শিব্বির আহমদ, ইসলামী ঐক্যজোট নেতা মাওঃ হাবিব আহমদ, কৃষকদল নেতা ফারুক আহমদ, যুবদল নেতা আব্দুল মান্নান, মামুন রশীদ,সাইক আহমদ,
    ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলাম, সেচ্ছাসেবক দল নেতা মিজানুর রহমান, মোহাম্মদ আলী, ফারুক আহমদ, রাশিদুল হাসান টিটু, শ্রমিকদল নেতা জাকারিয়া, এবাদুর রহমান, আবিদুর রহমান, শরীফ উদ্দিন, জাফর, তমিজ উদ্দিন, উলামাদলের সভাপতি মাওঃ কুদরত উল্লাহ, মাওঃ নিজাম উদ্দিন, ছাত্রদল নেতা খছরুজ্জামান, আমিন উদ্দিন, বাবলূ, আমিনুল ইসলাম, রুহুল আমিন, সুহেল আহমদ, আব্দুল বাসিত, দেলোয়ার, কবির উদ্দিন, বদরুল, আইসাম, রিয়াজ, বিজয় দাস, জাবেদ, তাজুল, মনজুর, সুহেল, আদনান, মেহেদী প্রমূখ। অপরদিকে হরতালে সমর্থনে জামায়াতেরমিছিল পিকেটিং পরবর্তী পথসভায়
    বক্তব্য রাখেন, উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওঃ আব্দুল করিম, নায়েবে আমির, মাওঃ আব্দুল মালিক, সেক্রেটারী মাওঃ কামাল উদ্দিন, জামায়াত নেতা, মাওঃ শরিফ উদ্দিন, হাফিজ তাজ উদ্দিন, মাওঃ আলিম উদ্দিন, মাওঃ দেলোওয়ার হোসেন, মাওঃ আব্দুল কুদ্দুছ, মাওঃ আশরাফ ফারুকী, আলী আহমদ, শিবির নেতা রশিদ আহমদ, শামীম আহমদ, ওমর ফারুক, গিয়াস উদ্দিন, শাকির আহমদ, আবু বক্কর, ইউসুফ, জুবায়ের প্রমুখ। হরতাল
    চলাকালে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। অফিসপাড়া খোলা থাকলেও উপস্থিতি ছিল কম। ব্যাংক বীমায় সীমিত লেনদেন হয়েছে। তবে পৌর শহরে দোকানপাট খোলা ছিল। এদিকে হরতালের সমর্থনে বিএনপি ও জামায়াতের নেতাকর্মীরা উপজেলা গাছবাড়ী,সড়কেরবাজার, চতুল বাজার সহ বিভিন্ন স্থানে পিকেটিং ও মিছিল করে।আজকের হরতালের সংবাদ এখনও পাওয়া যায়নি ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here