কলেজ ছাত্রীকে সাত টুকরো করে হত্যার আসামী আটক

    0
    18

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৪নভেম্বর,ডেস্ক নিউজঃ    আমতলীতে চাঞ্চল্যকর কলেজ ছাত্রী মালা আকতারকে সাত টুকরো করে হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবের বাসা সংলগ্ন পুকুর থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দুটি চাপাতি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

    বিপ্লবের কথিত মতে তার উপস্থিতিতে শনিবার দুপুরে এ চাপাতি উদ্ধার করা হয়। এ সময় তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে।

    পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, কলেজ ছাত্রী প্রেমিকা মালা আকতারকে গত ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় প্রেমিক আলমগীর হোসেন পলাশ তার আত্মীয় আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবের বাসায় বেড়াতে নিয়ে আসে।

    তিন দিন ধরে পলাশ ওই বাড়ীতে অবস্থান করে। গত ২৪ অক্টোবর (মঙ্গলবার) মালা পলাশকে বিয়ের চাপ দেয়। কিন্তু পলাশ এতে রাজি হয়নি। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে ঝগড়া ঝাটি হয়।

    এক পর্যায় ওইদিন দুপুরে আলমগীর হোসেন পলাশ মালা আকতারকে ধারালো অস্ত্র (বটি) দিয়ে কুপিয়ে মাথা, দু’হাত, দু’পা, গলার নিচ থেকে কোমর পর্যন্ত দু’টুকরো মোট সাত টুকরো করে হত্যা করে।

    ঘাতক পলাশ ও তার সহযোগীরা লাশ সাত টুকরো করে ওই বাসার গোসলখানায় দুটি ড্রামে ভরে লুকিয়ে রাখে।

    এ ঘটনায় সাথে সম্পৃক্ত বাসার মালিক আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবকে ওইদিন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

    আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম বাদল বাদী হয়ে ঘাতক আলমগীর হোসেন পলাশ ও আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবের নাম উল্লেখ করে চারজনের নামে ওইদিন হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

    গত ২৫ অক্টোবর আলমগীর হোসেন পলাশ আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হুমায়ূন কবিরের আদালতে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন। ওইদিন পুলিশ অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লব তালুকদারকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

    আদালতের বিজ্ঞ বিচারক হুমায়ুন কবির রিমান্ড আবেদনের শুনানী শেষে গত ৩১ অক্টোবর আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবকে পাঁচ দিনের পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

    রিমান্ডে থাকা অবস্থায় শনিবার দুপুরে মাইনুল আহসান বিপ্লবের কথিত মতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তার বাসার গোসলখানা সংলগ্ন পুকুর থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দুটি চাপাতি উদ্ধার করেছে।

    আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লব উপস্থিতিতে তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি পুলিনের গ্যারেজ থেকে পুলিশ জব্দ করে।

    আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লব বলেন এ মোটর সাইকেলে করে মালা আক্তারকে ঘটনার দুইদিন আগে আমার বাসায় বেড়াতে নিয়ে আসি।

    আমতলী থানার ওসি ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ শহিদ উল্যাহ জানান আসামী আইনজীবি মাইনুল আহসান বিপ্লবের স্বীকারোক্তি অনুসারে শনিবার দুপুরে বিপ্লবের উপস্থিতিতে তার বাসার গোসলখানা সংলগ্ন পুকুরে অভিযান চালাই।

    এ সময় ওই পুকুর থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দুটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

    তিনি আরো বলেন মালাকে আইনজীবি বিপ্লবের বাসায় বেড়াতে আনা তার মোটর সাইকেলটি জব্দ করেছি।আমাদের সময়

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here