আড়াই বছর পর্যন্ত সংযোগ বন্ধঃবিল পরিশোধের নোটিশ

    0
    4

    আমারসিলেট24ডটকম,০১ডিসেম্বর,শাব্বির এলাহীমৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে দীর্ঘ আড়াই বছর পর্যন্ত  টেলিফোন সংযোগ বন্ধ থাকলেও  গ্রাহকদের প্রতি বিল পরিশোধের নোটিশ। জানা যায়,বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের মাননীয় বিচারপতি এস.কে.সিন্হাসহ কমলগঞ্জ পৌরসভার আলেপুর,সদর ইউনিয়নের তিলকপুর,আলীনগর ইউনিয়নের দক্ষিণ তিলকপুর ও আদমপুর ইউনিয়নের হোমেরজান এলাকার ৬৫(পয়ষট্টি)জন গ্রাহকের নামে বিল পরিশোধের নোটিশ দিচ্ছে বিটিসিএল।কিন্তু  ২০১১সালের ০৭আগষ্ট অচলটেলিফোনলাইন সচল করার জন্য বিটিসিএল বরাবরে গ্রাহকগণ আবেদন করেন।যার অনুলিপি বিটিসিএল সিলেট টেলিযোগাযোগ অঞ্চলের প্রধান কর্মাধ্যক্ষ,পরিচালক,বিভাগীয় প্রকৌশলী,মৌলভীবাজার ও সহকারি প্রকৌশলী,শ্রীমঙ্গল বরাবরে প্রেরণ করা হয়।

    বিটিসিএল কমলগঞ্জের উপ সহকারি প্রকৌশলী রামজিৎ সিংহের সাথে এব্যাপারে আলাপকালে জানা যায়,তিনি দ্রুত কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিটিসিএলএর উর্ধ্বতন বিভাগে যথাসময়ে সুপারিশ ও তাগিদ দিয়েছেন।কি›তু গ্রাহকদের  আবেদনের আড়াই বছর পেরিয়ে গেলেও এ বিষযে কোন সুরাহা হয়নি বরং  মরার উপর খাড়ার ঘার মতো উল্টো বেচারা গ্রাহকদের প্রতি  অচল টেলিফোন লাইনের বিল পরিশোধের নোটিশ জারি করছে মহামহিম বিটিসিএল।যথাসময়ে বিল পরিশোধ না করলে মামলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে।অথচ টেলিফোন সংযোগ বিচ্ছিন্ন বা মেরামতের জন্য বারবার বিটিসিএল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী গ্রাহকরা।জানা যায়,কমলগঞ্জ উপজেলার বিটিসিএল এর আওতাধীন ্এসব এলাকায় ২০০৯ সালের ৫জুলাই উপজেলা সদর হতে প্রায় ৪কিলোমিটার ভূগর্ভস্থ কেবল লাইনের মাধ্যমে টেলিফোন সংযোগ চালুর পর এলাকার ৬৫জন গ্রাহক টেলিফোন সংযোগ নিয়ে নিয়মিত দেশ-বিদেশে যোগাযোগ অব্যাহত রাখার পর ২০১১ সালের৭আগষ্ট হঠাৎ করে চালু সংযোগ বিচ্ছিন্ন  হয়ে যায়।ফলে গ্রাহকরা চরম ভোগান্তির শিকার হন।গ্রাহক লক্ষী কুমার সিংহ,ব্রজচাঁদ সিংহ,প্রদীপ কুমার সিংহ,অরুনকান্তি সিংহ,বাবাতন সিংহ প্রমুখের কাছ থেকে জানা যায়,গত বছরের ৫আগষ্ট ২০১১সাল থেকে টেলিফোন অকেজো বা বন্ধ এবং এসব টেলিফোনের  প্রত্যেক নাম্বারে বিল প্রেরণ বিষয়ে বিটিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালককে লিখিতভাবে অবহিত করে টেলিফোনগুলির অচল থাকাকালীন সময়ের বিল মওকুফ ও বন্ধ করার ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন করেছিলেন।আজও এ বিষয়ে কোন ব্যবস্থা না নেওয়া হয়নি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here