আড়াই কোটি টাকা চাঁদা না দেওয়ায় হত্যার স্বীকার

    0
    3
    আমারসিলেট24ডটকম,০৪এপ্রিলঃ চাঁদা না দেয়ায় মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা ব্যবসায়ী আনিছুর রহমানকে (৪৫) গুলি করে হত্যা করেছে। রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন বছিলা রোডের তার ভাড়া বাসার সামনে গতকাল বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে। জমি বিক্রির আড়াই কোটি টাকা থেকে চাঁদা না দেওয়ায় তাকে হত্যা করা হয় বলে দাবি পরিবারের সদস্যদের। গুলি করে হত্যার পর দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ ও র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। খুনের রহস্য উদ্ঘাটনে পুলিশ ও র‌্যাবের একাধিক টিম মাঠে নামে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
    নিহতের স্ত্রী ইসমত আরা জানান, পশ্চিম কাটাসুর ১ নম্বর বসিলা রোডের ২৪৯/৫ নম্বর আব্দুল মতিনের ভাড়া বাড়িতে স্বামী-সন্তান নিয়ে তিনি সপরিবারে বসবাস করেন। গতকাল সকালে তার স্বামী আনিসুর রহমান ৪র্থ শ্রেণীতে অধ্যায়নরত কন্যাকে স্কুলে পৌঁছে দিয়ে বাসায় ফিরছিলেন। পথে বাসার গেটের সামনেই পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা মুখোশধারী  দুর্বৃত্তরা তার স্বামীকে গুলি করে পালিয়ে যায়। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী পাশের বাসা ২৪৮/২ নম্বর বাড়ির ম্যানেজার আবুল হোসেনের স্ত্রী মাকসুদা জানান, তিনি সকাল সোয়া ৭টার দিকে বাসার গাছে পানি দিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি দেখতে পান মোটরসাইকেলযোগে দুই মুখোশধারীর একজন মোটরসাইকেল থেকে নেমে আনিসকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি করে। পেটে, বুকে ও পিঠে গুলিবিদ্ধ হয়ে আনিস মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং বাঁচাও-বাঁচাও বলে চিৎকার করেন। পরে দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেলে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। চিৎকার শুনে আনিসের স্ত্রী ও আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। দ্রুত তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আনিসকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
    জানা যায়, নিহত আনিস মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত সাত মসজিদ সুপার মার্কেটের মালিক সিরাজ উদ্দিনের ভাগিনা। আনিস এই মার্কেটের একটি সমিতির সাথে জড়িত ছিলেন। সমিতির পক্ষ থেকে সাভার আশুলিয়ায় একটি জায়গা ক্রয় করা হয়েছিল। পরে জায়গাটি নিয়ে আশুলিয়ার কিছু লোকজনের সাথে ঝামেলা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে জমিটি আড়াই কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়। এরপর থেকে বিভিন্নভাবে অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা তার কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে আসছিল। নিহতের ভাই শহিদুল্ল¬াহর দাবি, আশুলিয়ায় ওই জমি বিক্রি করা এবং চাঁদা না দেয়ার কারণেই তার ভাইকে হত্যা করা হয়েছে। নিহত আনিস লোহার গ্রিলের ব্যবসার পাশাপাশি কেরানীগঞ্জের আটিবাজারে, সিরাজনগর ও এর আশপাশ এলাকায় জায়গা ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবসা করতেন।
    তার বাবার নাম মরহুম তফিজ উদ্দিন। তিনি ঢাকা কেরানীগঞ্জ আটিবাজারের কাছে দক্ষিণপাড়ার সিরাজনগরের স্থানীয় বাসিন্দা। তিনি দুই সন্তানের জনক। এ ব্যাপারে মোহাম্মদপুর থানায় একটি হত্যামামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here