আসুন সকলে মিলে আল জাজিরাকে প্রতিহত করি

    0
    20

    “আল জাজিরার কুনজর পড়েছে বাংলাদেশের উপর” এর আলোকে এক প্রবাসী তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে বাংলাদেশে দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন আসুন সকলে মিলে আল জাজিরাকে প্রতিহত করি” নিম্নে তার স্ট্যাটাসের হুবহু তুলে ধরা হল।  

    আল জাজিরা আজ ফেসবুকে দেখলাম বাংলাদেশে আল জাজিরাকে নিয়ে বেশ তোলপাড় চলছে। গত বছর জুলাই মাসে অর্থাৎ ২০২০ সালের জুলাইতে আল জাজিরা মালয়শিয়ার চলমান লকডাউন নিয়ে ২৬ মিনিটের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটি একদিনের ভিতর মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে যায়, মালয়শিয়ার সর্বস্থানের জনগণ ক্ষোভে ফেটে পড়ে আল জাজিরার এত বড় সাহস কেমনে হলো মালয়শিয়াকে নিয়ে এমন প্রতিবেদন তৈরি করার। সাথে সাথে আল জাজিরার সকল কর্মকর্তা, সাংবাদিক, ক্যামেরাম্যান এবং প্রতিবেদনে সংশ্লিষ্ট সকলের উপর গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।
    বলাবাহুল্য উক্ত প্রতিবেদনে রায়হান কবির নামে এক বাঙ্গালী ১মিনিটের সাক্ষাৎকার দেয়। সুতরাং গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে আল জাজিরার সকল কর্মকর্তা এবং রায়হান কবির সহ সকলে পলাতক হয়। কোনো উপায় না পেয়ে তিন দিন পরে আল জাজিরার সাংবাদিক, ক্যামেরাম্যান, কর্মকর্তাসহ সর্বমোট ৯ জনে মালয়শিয়ার ২৩ জন বড় ধরনের উকিল নিয়ে আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করে।
    মালয়শিয়ার আদালত তাদের একটি মাত্র প্রশ্ন করে মালয়শিয়ার ভাল-মন্দ বা অভ্যন্তরীণ বা বাইরের ব্যাপারে মালয়শিয়াকে নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করার আল জাজিরা কে? তারপর বড় ধরনের জরিমানা করে ও মালয়শিয়া সম্পর্কিত সকল প্রকার প্রতিবেদন এবং ভিডিও আল জাজিরার মিডিয়া স্যোসিয়াল এবং ওয়েবসাইট থেকে ডিলিট করতে বলে এবং মালয়শিয়াতে আল জাজিরার লাইসেন্স বাতিল করে তাদের মালয়শিয়া ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়। দুর্ভাগ্য বাঙ্গালী রায়হান কবির এক সপ্তাহ পলাতক থাকার পরে পুলিশ তাকে ধরে ফেলে তারপর মালয়শিয়াস্ত্ব বাংলাদেশ দূতাবাস অনেক দৌড় ঝাপ করে মালয়শিয়ার সরকারের কাছে রায়হান কবিরের হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে, তাকে কোনো সাজা না দেওয়ার অনুরোধ করে। মালয়শিয়ার সরকার ইমিগ্রেশানের মাধ্যমে রায়হান কবিরের ভিসা বাতিল করে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায়।
    এটাই হলো আল জাজিরার আসল চেহারা, এখন বাংলাদেশ নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে এতে স্পস্টভাবে বোঝা যায় আল জাজিরার কুনজর পড়েছে বাংলাদেশের উপর। বাংলাদেশ সরকারের কাছে অনুরোধ করবো আল জাজিরাকে বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত করার জন্য যথাযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। আর সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করবো দলমত নির্বিশেষে আসুন সকলে মিলে আল জাজিরাকে প্রতিহত করি এবং বাংলাদেশ রক্ষা করি। মনে রাখবেন ইরাক এবং সিরিয়া ধ্বংসের পিছনে মূল ভূমিকা পালন করেছে এই আল জাজিরা।