আ’লীগ কার্যালয়ে নাশকতা:আটক ২ শিবিরকর্মী

    0
    3

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবরঃক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কার্যালয় টার্গেট করে নাশকতা শুরু করেছে জামায়াত শিবির কর্মীরা। রাজধানীতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আওয়ামী লীগের কার্যালয় টার্গেট করে আগুন দেয়া শুরু করেছে তারা। এর মধ্যে আজ ভোর থেকে শিবিরকর্মীরা রাজধানীর বনানী ও গুলশানে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে। ডেমরা ষ্টাফ কোয়াটারের সামনে ঝটিকা মিছিল বের করে একটি বাস ও একটি সিএনজি ভাংচুর করেছে শিবির। এসময় তারা  ৪/৫ টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। রাজধানীতে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড কার্যালয় ঘিরে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যেই এ নাশকতা চালানো হচ্ছে। তবে, জামায়াত-শিবিরের নাশকতা প্রতিরোধে সকাল থেকেই রাজধানীতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

    জানা গেছে রাজধানীর গুলশান থানাধীন শাহজাদপুর এলাকায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আগুন দেয়ার চেষ্টাকালে দুই জামায়াত-শিবিরকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে লাঠি ও রড উদ্ধার করা হয়। আটককৃত দুজন হলেন- মো. সাহাবুদ্দিন (২৬) ও মেহেদী হাসান (২২)। পুলিশ জানায়, আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ২০/২৫ জনের জামায়াত-শিবিরের একটি দল মিছিল বের করে সুবাস্তু নজর ভ্যালি টাওয়ারের বিপরীত পাশে অবস্থিত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের অফিসে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়ার চেষ্টা করে। এসময় তারা ৩/৪টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২ শিবিরকর্মীকে আটক করে।গুলশান থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, আজ বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সুবাস্তু নজর ভ্যালি টাওয়ারের কাছ থেকে তাদের আটক করা হয়। তারা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের অফিসে আগুন দেয়ার চেষ্টা করছিল।

    গুলশান জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার নূরে আলম বলেন, জামায়াত-শিবিরকর্মীরা মিছিল নিয়ে আওয়ামী লীগ অফিস পুড়ে দেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এসময় শিবিরকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়। পরে ধাওয়া করে শাহাবুদ্দিন (২৫) ও মেহেদি হাসান (২২) নামে দুই শিবিরকর্মীকে আটক করে পুলিশ।এদিকে প্রায় একই সময়ে মহাখালীর ওয়ারল্যাস গেট এলাকায় মহানগর যুবলীগের বানানী থানা কাযার্লয়ে আগুন লাগে।

    বানানী থানার ওসি ভূঁইয়া মাহবুব হোসেন বলেন, বৈদ্যুতিক গোলযোগের কারণে এ ঘটনা ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ওই কার্যালয়ের দরজা-জানালা বন্ধ ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, স্থানীয়রাই দ্রুত আগুন নিভিয়ে ফেলেন। তবে  আওয়ামী লীগ সুত্র বলছে, বনানী থানা যুবলীগ কার্যালয়ে আগুন দিয়েছে জামায়াত-শিবির। এ বিষয়ে বনানী থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ইউসুফ সর্দার সোহেল বলেন, সারাদেশে জামায়াত শিবির যে নাশকতা করছে এটি তারই অংশ। জামায়াত-শিবির কর্মীরা ভোরে সবার অগোচরে এ নাশকতা চালিয়েছে।তিনি বলেন, ঘটনার প্রতিবাদে আমরা বিক্ষোভ মিছিল করবো।
    এছাড়া রাজধানীর ডেমরা ষ্টাফ কোয়াটারের সামনে ঝটিকা মিছিল বের করে একটি বাস ও একটি সিএনজি ভাংচুর করেছে শিবির। এসময় তারা  ৪/৫ টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। আজ সকাল সোয়া নয়টায় দিকে শিবির কর্মীরা এ ঘটনা ঘটায়।
    ডেমরা জোনের সহকারী কমিশনার মিনহাজুল ইসলাম জানান, আজ সকালে শিবির কর্মীরা একটি ঝটিকা মিছিল বের করলে পুলিশ তাদেরকে ধাওয়া করে। পুলিশের ধাওয়া খেয়ে মিছিলকারীরা একটি বাস ও একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় ভাংচুর চালায়।তিনি আরো জানান, শিবির কর্মীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় পর পর ৪/৫ টি ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটায়।

    সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানায়, ২৫ অক্টোবর জামায়াত-শিবির বড় ধরনের নাশকতা চালাতে পারে এমন খবর রয়েছে গোয়েন্দা সংস্থার কাছে। তবে, এজন্য পুলিশকে সতর্কও করা হয়েছে। জামায়াত-শিবির কর্মীরা পুলিশ ও প্রশাসনিক স্থাপনাকে লক্ষ্য করে হামলা চালাতে পারে বলে বলে আশঙ্কা করলেও বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তারা আওয়ামী লীগ কার্যালয় টার্গেট করেই হামলা করা শুরু করেছে। এদিকে রাজধানীর পল্টন, খিলগাঁও, শাজাহানপুর, যাত্রাবাড়ী, মুগদাসহ বিভিন্ন থানার ওসিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রত্যেকটি থানা এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাকে ঘিরে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রাজধানীর নিরাপত্তা ব্যবস্থার সার্বিক বিষয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার ইব্রাহীম ফাতেমি বলেন, পুরো রাজধানীজুড়েই অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। যে কোনো ধরনের নাশকতা মোকাবেলায় পুলিশ সতর্ক রয়েছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here