আর যেন কোনো অগণতান্ত্রিক শক্তি সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহার করে ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

    0
    4

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আর যেন কোনো অগণতান্ত্রিক শক্তি সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহার করে ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমান সরকার সশস্ত্র বাহিনীকে কোনো অবস্থাতেই দলীয় স্বার্থে ব্যবহৃত হতে দেবে না। সশস্ত্র বাহিনীকে যেকোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তক্ষেপের ঊর্ধ্বে রাখা হবে।  PM hasina
    আজ বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা সেনানিবাসের সেনাকুঞ্জে এক বিশেষ অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনীর শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।
    প্রধানমন্ত্রী আজ সকাল সাড়ে নয়টায় সেনাকুঞ্জে যান। সেখানে সেনাবাহিনী-প্রধান জেনারেল ইকবাল করিম ভূঁইয়া, নৌবাহিনী-প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল এম ফরিদ হাবিব, বিমানবাহিনীর ভারপ্রাপ্ত প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল আবু এসরার, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের পিএসও লে. জেনারেল আবু বেলাল মো. শফিউল হক প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রয়াত রাষ্ট্রপতির প্রতি সম্মান জানাতে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরে তিন বাহিনীর প্রধানেরা সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, সামরিক সচিব, প্রেস সচিব এবং ঢাকা গ্যারিসন এলাকার দায়িত্বশীল ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
    প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সশস্ত্র বাহিনী আমাদের একটি জাতীয় প্রতিষ্ঠান। এর নিজস্ব ভাবমূর্তিসহ পেশাগত দিক থেকে দক্ষ করে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে যা প্রয়োজন, তা আমরা করব। সশস্ত্র বাহিনীর সব কার্যক্রম ও ব্যবস্থাপনার প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার স্বার্থে একে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখা অপরিহার্য।’
    শেখ হাসিনা বলেন, ‘অতীতে গণতান্ত্রিক ধারা ব্যাহত করতে স্বার্থান্বেষী মহল সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহার করেছে। সশস্ত্র বাহিনীর পিঠে সওয়ার হয়ে সামরিক শাসন, স্বৈরশাসন ও সন্ত্রাসের খড়্গ নেমে এসেছিল নিরীহ জনগণের ওপর। দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রা এই অপশাসনের কারণে ব্যাহত হয়েছিল।’
    প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সশস্ত্র বাহিনীর সব স্তরের চেইন অব কমান্ড কোনো ধরনের সংশয় ছাড়াই সচল রাখতে হবে। আমরা একটা পেশাদার সশস্ত্র বাহিনী চাই। সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা হবে সুদক্ষ, সুপ্রশিক্ষিত ও সুশৃঙ্খল। তাদের কাজে ও চিন্তায় পেশাদারি মনোভাব প্রতিফলিত হবে। ঊর্ধ্বতন ও অধস্তনের মধ্যে কোনো দূরত্ব থাকা মোটেই কাম্য নয়।’

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here