আমাদের নৈতিক ও ধর্মীয় শিক্ষায় বলিয়ান হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

    0
    4

    “এবছরও চট্টগ্রাম ও সিলেট থেকে হজযাত্রী পরিবহন করবে বিমান”

    আমারসিলেটটোয়েন্টিফোর,০৬ সেপ্টেম্বর  : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন  ইসলামের নামে দেশে অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলা তৈরি করে যারা মানুষকে বিভ্রান্ত করছে তাদের বিষয়ে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। ধর্মীয় শিক্ষা ছাড়া কোন শিক্ষাই পূর্ণাঙ্গ নয়। আমাদের নৈতিক ও ধর্মীয় শিক্ষায় বলিয়ান হতে হবে। আজ শুক্রবার রাজধানীর আশকোনায় হাজী ক্যাম্পের কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ বলেন। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী মন্ত্রী লে.কর্নেল (অব.) ফারুক খান, ডাক ও  টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এড. সাহারা খাতুন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. শাহজাহান মিয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ধর্মসিচিব কাজী হাবিবুল আউয়াল।

    প্রধানমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনা বলেন, ইসলামের প্রচার ও প্রসারে প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে উন্নত মসজিদ করে দেয়া হবে। বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সংস্কারে সৌদি আরব সরকার সহযোগীতা করেছেন। তাদের প্রতি আমাদের মোবারকবাদ। আবারো সৌদি সহযোগিতা পেলে প্রত্যেক উপজেলায় উন্নত মসজিদ নির্মাণের কাজটি অনেক সহজ হয়ে যাবে। এ বিষয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সৌদি রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ আল বুশাইরির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন প্রধানমন্ত্রী। বর্তমান সরকারের নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কথাও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। সৌদি সরকার আমাদের হাজিদের জন্য হজ ব্রত পালন করার সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে আমি প্রথম হজ করতে সৌদি আরব গিয়েছিলাম ৮৪ সালে। তখন যে সুযোগ-সুবিধা ছিল তার চেয়ে এখন অনেক উন্নত হয়েছে।
    ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হিসাবে, এ বছর বাংলাদেশ থেকে মোট ৮৮ হাজার ৯১১ জন হজে যাবেন। হজ টাস্কফোর্সের প্রধান জয়নাল আবেদিন তালুকদার বলেন, হজযাত্রা নির্বিঘœ করতে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া শেষ। আজ শুক্রবার সকাল থেকে হজযাত্রীরা ক্যাম্পে রিপোর্ট শুরু করেছেন। প্রথমে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ অন্যান্য কাজ সম্পন্ন করা হবে। আগামীকাল শনিবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং ৫৮২ জন যাত্রী নিয়ে জেদ্দার উদ্দেশে রওনা হবে। এর মধ্য দিয়ে শুরু হবে এবারের হজ ফ্লাইট। হজযাত্রী পরিবহনে মোট ৯২টি ডেডিকেটেড ফ্লাইট চালাবে বিমান। এছাড়া ২২টি নিয়মিত ফ্লাইটেও হজযাত্রী পরিবহন করা হবে। এবছরও চট্টগ্রাম ও সিলেট থেকে হজযাত্রী পরিবহন করবে বিমান। সৌদি আরব ও বাংলাদেশের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী, মোট হজযাত্রীর অর্ধেক বহন করবে বিমান। বাকি অর্ধেক করবে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স এবং নাস এয়ারওয়েজ।
    প্রসঙ্গত, হজ যাত্রীদের পরিবহনে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট আগামী আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু হবে। আর ১৯ অক্টোবর থেকে ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে। পাশাপাশি হজ যাত্রী পরিবহনে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স ৮ সেপ্টেম্বর থেকে ফ্লাইট শুরু করবে। এবার ৯০ হাজার বাংলাদেশি হজে অংশ নেবেন। সাধারণ প্যাকেজের পাশাপাশি একটি সংক্ষিপ্ত প্যাকেজও চালু করা হবে। এই প্যাকেজের খরচ ধরা হয়েছে ২ হাজার ৫০০ ডলার। আর সাধারণ প্যাকেজের খরচ ১ হাজার ৪৭৫ ডলার। এছাড়া ঢাকা ছাড়াও সিলেট চট্টগ্রামের হজ যাত্রীরা নিজ নিজ এলাকা থেকে সরাসরি জেদ্দায় যেতে পারবেন।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here