আত্রাইয়ে পাড়ায় পাড়ায় কাঁচা আমের আচার তৈরীর ধুম

    0
    21

    আমার সিলেট টুয়েন্টি ফোর ডটকম,২০মে, নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: এসেছে আমের মৌসুম। কেউ কাঁচা আম খেতে ভালোবাসেন, কেউ পাকা আম খেতে ভালোবাসেন। কেউ বা রান্নায় ভিন্ন স্বাদের জন্য কাঁচা আম ব্যবহার করেন। আবার অনেকেই আমের আচার তৈরী করে থাকেন। মজাদার আমের আঁচার খেতে কে না পছন্দ করে! আমের আচার বাঙ্গালীর একটা অন্যতম লোভনীয় খাবার। বাংলাদেশের বাঙ্গালী কিংবা ইন্ডিয়ার বাঙ্গালী, যে দেশের বাঙ্গালীকেই বলুন না কেন, সবাই আঁচারের নাম শুনলে জিবে জল নিয়ে আসবেই! আর আমাদের মায়েরা/মেয়েরা! ওহ মাই গড!  আহ, আঁচার! আমায় একটু দে না !

    কাঁচা আমের দিন চলে যাচ্ছে। ঘরের গৃহবধুরা কাচা আম সংগ্রহ করে আমের আচার তৈরী নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এমনি এক পরিস্থিতি লক্ষ করা যায় নওগাঁর আত্রাইয়ে। উপজেলার সকল এলাকার পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে দেখা যায় কাচা আম সংগ্রহ করে আমের আচার তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মহিলারা। বেশ কয়েকটি পাড়ায় ঘুরে দেখা যায় কারো বাসার ছাদে, টিনের চালার উপড়ে, বাসার উঠানে, বাড়ান্দায় বাসার যেখানে রোদের তাপ সেখানে লক্ষ করা যায় ঝাড়ি, প্লাস্টিকের ঝুড়ি বা কুলা, ডালায় কাচা আম আচারের উপযুক্ত করে কেটে রৌদ্রে শুকাতে দিয়েছেন। বেশ কয়েকটি ঘরে দেখা যায় আম সিদ্ধ করে আমের আচার প্রস্তÍুত করছেন। হয়তো দু’চার-পাচঁ দিন পুরোদমে হবে ঘরে ঘরে আঁচার বানানো শেষ হয়ে যাবে।

    আম বা জলপাইয়ের আচার এর চাহিদা কম নয়। আমের আচার বেশিরভাগই টক ঝাল মিষ্টি এ ধরনের তৈরী করতে দেখা যায়। দেশে যেমন চাহিদা বিদেশেও দ্বিগুণ। আত্রাইয়ের বিভিন্ন এলাকায় মহিলারা জানান কেউ শখের বশবর্তী হয়ে আচার তৈরী করেন। কেউ ছেলে/ ভাই/ স্বামী দেশের বাহিরে আছে তার জন্য আচার তৈরী করছেন । আবার কেউ কেউ মেয়ের শশুর বাড়িতে দেওয়ার জন্য তৈরী করছেন। আত্রাইয়ের কয়েকটি এলাকা থেকে কয়েকটি দেশে আত্তœীয় স্বজনদের জন্য আমের আচার পাঠানো হয়। আমের আঁচার ইটালী, সৌদি, ডুবাই, ওমান, লন্ডন সহ কয়েকটি দেশে আচার পাঠানো হয় বলে ঘরনীরা জানান।

    আত্রাই উপজেলার শাহাগোলা এলাকার এক মহিলা সুমাইয়া আক্তার জানান দ্রব্যের মুল্যবৃদ্বি পাওয়ায় আমের আচার তৈরী করতে খরচ দ্বিগুন হয়। কাঁচা আমের দাম এবং মশলাপাতির দাম গত বছরের তুলনায় বেড়েই চলছে। তাই বেশির চেয়ে কম করে তৈরী করছেন।

    একই এলাকার এক মহিলা (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানান তিনি প্রতি বছরই আমের আচার তৈরী করে থাকেন। এবছরও তিনি প্রায় ৫০০০ টাকা খরচ করে আমের আচার তৈরী করেছেন। কয়েক দিন পরেই আচারগুলো খাবারের উপযোগী হবে। এবং কিছু আচার ওনার স্বামীর জন্য দেশের বাহিরেও পাঠাবেন।
    পাড়ার এক মহিলার কাছে আমের আচার তৈরী সম্পর্কে জানতে চাইলে বলেন আমের আচার তৈরীর জন্য বিভিন্ন ধরনের মসলার প্রয়োজন হয় যেমন: কাচা আম, রসুন, পাঁচফোঁড়ন, সরিষা গুড়ো, সরিষার তেল, শুকনা মরিচ, আখের গুড়, চিনি, লবন, হলুদ, সিরকা, জিরা টালা গুড়া এগুলো হলো এক জাতের আমের আচার তৈরীর নিয়ম। তিনি বলেন আরো বিভিন্ন আইটেমের আচার বানানো যায়। খরচও হবে আলাদা। একেক আইটেম আচারের জন্য একটু আলাদা মসলার প্রয়োজন হয়।
    কাচা আমের দিন প্রায় শেষের দিকে। কয়েকদিন পরেই আম পাকা শুরু হবে তাই আগে ভাগেই কাচা আম সংগ্রহ করে আমের আচার তৈরী করছেন ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here