অবশেষে হোটেলে কাজ করা সেই স্কুল শিক্ষক মাথা গোজার ঠাঁই পেলেন

0
87
অবশেষে হোটেলে কাজ করা সেই স্কুল শিক্ষক মাথা গোজার ঠাঁই পেলেন

নিশাত আনজুমান, আক্কেলপুর, জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার কানুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান  শিক্ষক রইচ উদ্দিন টিপু চাকুরি জীবন শেষ হলেও অবসর ভাতা না পেয়ে হোটেলের মেসিয়ারি করা সেই স্কুল শিক্ষক অবশেষে থাকার ঘর পেলেন।

কানুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের প্রচেষ্টায় স্কুলের পাশেই এই ঘর করে দেওয়া হয়।

আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিশ্রুতি ভিলা নামক বাড়িটির উদ্বোধন করা হয়।

শিক্ষার্থীরা জানান, জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার কানুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজির শিক্ষক  মো: রইচ উদ্দীন এ বিদ্যালয়ে দীর্ঘ ২২ বছর শিক্ষকতা করেন। হাজার হাজার ছাত্রছাত্রীকে তিনি মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে গড়ে তুলেছেন। এক দিন এক ছাত্রীর মৃত্য দেহ মাটি দিয়ে  বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় তার একটা পা ভেঙ্গে যায়। তার কিছুদিন পর ২০১৮ সালের মে মাসে অবসরে গেলেও এখনও পাননি অবসর ভাতা। ফলে স্ত্রী জয়নব বেগম ও দুই মেয়েসহ পরিবারের ৪ সদস্যের খাবার খরচ না চালাতে পেরে। তিনি জীবীকার তাগিদে অর্থ উপার্যনের জন্য রাজধানী ঢাকাতে পারি জমান। তার কিছু দিন পর তিনি নিজ জেলাতে ফিরে জয়পুরহাটের একটি হোটেলে মেসিয়ারের কাজ শুরু করেন এই শিক্ষাগুরু।

এ বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফ্রেসবুকে ভাইরাল হলে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

 শিক্ষক রইচ উদ্দীনকে মেসিয়ারের কাজ করার কথা শুনে  তাঁর প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করে সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেন। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর অবশেষে তৈরি হয়েছে এই প্রতিশ্রুতি ভিলা নামক বাড়িটি। এই বাড়িটি তার প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা স্থানিয় প্রশাসনের সহায়তায় তাদের প্রিয় শিক্ষককে উপহার দিলেন।

ঘরটির উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুর রহমান, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ মোকছেদ আলী, সাধারণ সম্পাদক ও রুকিন্দীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আহসান কবির এপ্লব, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ.কে.এম মোস্তাফিজার রানা সহ উক্ত বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক ও সাবেক এবং বর্তমান ছাত্রছাত্রীবৃন্দরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here