Monday 21st of September 2020 02:02:07 AM
Tuesday 12th of November 2013 02:53:30 PM

অবরোধ কর্মসূচির প্রস্তুতি নিচ্ছে বিরোধীদল

বিশেষ খবর ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
অবরোধ কর্মসূচির প্রস্তুতি নিচ্ছে বিরোধীদল

আমার সিলেট  24 ডটকম,১২নভেম্বরঃ সমঝোতা ছাড়া নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করার সাথে সাথে দেশজুড়ে টানা অবরোধ কর্মসূচির প্রস্তুতি নিচ্ছে বিরোধীদলীয় জোট। রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথে সর্বাত্মক অবরোধের মাধ্যমে দেশকে অচল করে দেয়ার কর্মসূচি নেবে তারা । বিরোধীরা কোনোভাবেই সরকারকে একতরফা নির্বাচন করতে দিতে রাজি নয়। ইতিমধ্যে বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিরোধীদলীয় জোট সর্বদলীয় সরকার গঠনের পদক্ষেপ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে। বিরোধীদলীয় জোটের অভিযোগ, সরকার বিএনপির সাথে সমঝোতা ছাড়া একতরফা নির্বাচন করতে চাইছে। এ অবস্থায় যে কোনো ধরনের বৈরী পরিস্থিতিতেও সর্বাত্মক আন্দোলনের কৌশল নিচ্ছে বিএনপি।

এদিকে বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের দমন অভিযানে বিরোধী দলের গুরুত্বপূর্ণ সব নেতা গ্রেফতার হলে ওই আন্দোলন নেতৃত্বশূন্য হয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। আর এ কারণেই বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ নেতারা হাইকমান্ডের জ্ঞাতসারেই গা-ঢাকা দিয়েছে বলে জানা যায় । কারণ এখন প্রকাশ্যে রাজপথে নেমে এলে তাদের গ্রেফতার হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনের বিষয়টিকে নীতিগতভাবে সম্মতি দিয়েছেন বিএনপি প্রধান বেগম খালেদা জিয়া। বিরোধীদলীয় জোটের দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে ।
অপরদিকে ,খুব শিগগিরই নির্বাচন কমিশন ১০ম জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

সরকারও নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। এর ধারাবাহিকতায় ইতিমধ্যে বর্তমান মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে পদত্যাগপত্র ও জমা দিয়েছেন। আগামী সপ্তাহেই প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সর্বদলীল সরকার গঠনের সম্ভাবনা রয়েছে।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমানের বলেন, সরকারের দমন নীতির প্রেক্ষিতে আত্মগোপনে থাকা বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতাদের তৃণমূলের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা এবং আন্দোলনের মাঠে তাদের পরিচালনা করার নির্দেশ দিয়েছেন বেগম জিয়া। বিএনপির নেতাদের আত্মগোপনে যাওয়া সাময়িক কৌশলেরই অংশ বলে জানান । তাছাড়া বিরোধী দলের সব নেতা আত্মগোপনে যাননি।

অনেক নেতাই এখনো কর্মীদের মধ্যে থেকে সরাসরি আন্দোলনে ভূমিকা রাখছেন। তাদের অভিযোগ,সর্বদলীয় সরকার গঠনের উদ্যোগের মাধ্যমে সরকার সংলাপের পথ বন্ধ করে দিচ্ছে। তবে বিরোধীদলীয় জোট এখনো আশাবাদী সরকার শেষ মুহূর্তে হলেও সমঝোতার দিকে এগিয়ে আসবে। আর সরকার সমঝোতার দিকে না এসে একতরফা নির্বাচন করতে চাইলে বিরোধী দল জনগণকে সাথে নিয়ে দেশ অচল করে দেবে। সরকারকে নির্দলীয় ব্যবস্থায় নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে। বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটি সদস্য আসম হান্নান শাহ সাংবাদিকদের বলেন, নেতাদের গ্রেফতারের কারণে কর্মী-সর্থকরা আরো বেশি সক্রিয়ভাবে রাজপথে নামছেন। আর ১৮দলীয় জোটের শরিক এলডিপির মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমদের মতে, বিরোধীদলীয় জোটের নেতারা আত্মগোপনে থাকলেও আন্দোলন ক্রমশই জোরদার হচ্ছে। সরকারের সাথে সশস্ত্র পুলিশ রয়েছে। বিরোধীদের রাষ্ট্রীয় শক্তির সাথে লড়াই করতে হলে প্রয়োজনীয় কৌশল নিতেই হবে। আত্মগোপনে থেকে আন্দোলন অব্যাহত রাখা এ সময়ের কৌশল।
বিরোধীদলীয় জোট সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার মনোবল অটুট রয়েছে। তিনি দল ও জোটের নেতাকর্মীদের এবং পেশাজীবী নেতাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন। খালেদা জিয়াই কৌশলগতভাবে নেতাদের আত্মগোপনে থেকে মাঠপর্যায়ের আন্দোলন গতিশীল রাখার নির্শে দিয়েছেন। যে ক’জন নেতা এরই মধ্যে কারাগারে গেছ্নে, তাদের  মুক্তির জন্য আইনি লড়াই অব্যাহত রাখতেও দলীয় আইনজীবীদের নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী । বিরোধীদলীয় জোট সরকারকে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে বাধ্য করাবে। ইতিপূর্বে খালেদা জিয়া ঘোষণা করেছেন, দাবি না মানলে হরতালের পর লাগাতার অবরোধ, ঘেরাও, অসহযোগের কর্মসূচি দেয়া হবে। তারই ধারাবাহিকতায় ৩ দফা হরতালের সামনের সপ্তাহে আরো একদফা একই কর্মসূচি পালনের পর বিরোধীদলীয় জোট অবরোধ কর্মসূচির দিকে অগ্রসর হবে। তফসিল ঘোষণার পর বিএনপি পয়েন্ট অব নো রিটার্নে যাবে। তখন আত্মগোপনে থাকা নেতারাও প্রকাশ্যে রাজপথে নেমে আসবেন এবং ওই চূড়ান্ত আন্দোলনে খালেদা জিয়াও রাজপথে নামবেন।
এ প্রসঙ্গে বিএনপির যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিকদের জানান, মন্ত্রিদের পদত্যাদপত্র জমা দেয়ার পর নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের যে প্রক্রিয়া শুরু করছে সরকার বিরোধীদলীয় জোট তা প্রত্যাখ্যান করেছে। বরং শুভবুদ্ধির পরিচয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী এখনই পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা উচিত। সরকার সমঝোতার পথে না এসে তফসিল ঘোষণা করলেই সর্বাত্মক আন্দোলন শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করে যদি নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকার গঠনের উদ্যোগ নেন তাহলেই কেবল চলমান সঙ্কট সমাধান হবে। দেশে শান্তি ও স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে। প্রধানমন্ত্রীর অশুভ চিন্তা সর্বদলীয় সরকার। ওই পথে হাঁটলে পরিণতি শুভ হবে না বললেন রিজভী ।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc