অবরোধের ব্যাপক তাণ্ডবে সারাদেশে নিহত৩

    0
    7

    আমার সিলেট24ডটকম,২৬নভেম্বরঃ ভোর থেকে বিএনপির ডাকে ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ চলছে। চলবে আগামী বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত। ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ঘোষিত তফসিল প্রত্যাখ্যান করে তা স্থগিত করার দাবি জানিয়ে সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের ডাক দিয়েছে বিএনপি। এদিকে তফসিল ঘোষণার পর পরই বিএনপি জামায়াত ১৮জোট সারাদেশে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। এ সময়  রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বোমা বিস্ফোরণ,রেল লাইন উপরে ফেলা,রেলের নির্বিচারে গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে, হচ্ছে সংঘাতও।এ ঘটনায় অন্তত ৩জনের প্রাণহাণী ঘটেছেবলে জানা যায়। বাড্ডায় বোমাবাজির পর হুড়োহুড়ির মধ্যে বাসচাপায় এক রিকশা চালক মারা গেছেন। কুমিল্লায় বোমা বিস্ফোরণে নিহত একজন সহ যুবলীগের এক নেতাও খুন হয়েছে।
    গত কাল সোমবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষনার পর এ কর্মসূচী ঘোষনা করেছে দলটি। রাত ৯ টার দিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে আয়োজিত এক জরুরি প্রেস ব্রিফিংয়ে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিক মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কর্মসূচী ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত সারাদেশে রাজপথ, রেলপথ ও নৌপথ অবরোধ করা হবে। তিনি জানান, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি ডাকা হয়েছে।
    সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এম ওসমান ফারুক, রুহুল আলম চৌধুরী, যুগ্মমহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহমহিলা বিষয়ক সম্পাদক বেগম  শিরিন সুলতানা, সহদফতর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, আব্দুল লতিফ জনি এবং ১৮ দলের শরিক এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্তুজা, এলডিপির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
    ১৮ দলের মুখপাত্র বলেন, প্রহসনের নির্বাচন প্রক্রিয়া একতরফাভাবে শুরু হওয়ায় আমাদের আন্দোলন নতুন পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। এ আন্দোলনের প্রাথমিক ধাপে মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত সারাদেশে ৪৮ ঘণ্টার রাজপথ, রেল পথ এবং নৌপথ অবরোধ কর্মসূচি ১৮ দলের পক্ষ থেকে ঘোষণা করছি। কষ্ট করে সবাইকে এ কর্মসূচি পালনেরও আহ্বান জানান তিনি। পরবর্তী কর্মসূচি পর্যায়ক্রমে ঘোষণা করা হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন তিনি। মির্জা ফখরু বলেন, দেশবাসীর প্রত্যাশাকে সম্পূর্ণভাবে উপক্ষো করে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আহ্বান উপেক্ষা করে, সকল  বিরোধী রাজনৈতিক  দলগুলোর দাবি তোয়াক্কা না করে ক্ষমতায় থেকে একটি প্রহসনের নির্বাচনের গণতন্ত্র এবং জনগণের ভোটের অধিকার হরণের জন্য মেরুদন্ডহীন নির্বাচন কমিশন যে তফসিল ঘোষণা করেছে তা আমরা প্রত্যাখ্যান করছি। তিনি বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারের ব্যাপারে রাজনৈতিক সমঝোতা না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ তফসিল স্থগিতের দাবি জানাচ্ছি। নির্বাচন নামের প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন এ প্রহসনের আয়োজন চরম কাণ্ডজ্ঞানহীনতার পরিচয় বহন করে।
    বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, দেশবাসীর প্রত্যাশার আলোকে সকল দলের অংশগ্রহণে আমরা নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু, অবাধ, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন চাই। আমরা অর্থবহ নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। তিনি বলেন, নির্বাচনের নামে কোনো প্রহসনের নির্বাচনে বিএনপি ও ১৮ দলীয়  জোট ও অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক দল অংশ গ্রহণ করবে না। আমরা নির্বাচনের নামে প্রহসনের আয়োজনে  কোনো প্রক্রিয়ায় অংশ না নেয়ার জন্য দেশবাসীসহ সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।
    বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দল কর্মসূচি ঘোষণার আগেই রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে বিস্ফোরণ ও গাড়িতে আগুন দেয়ার খবর আসে। সোমবার সন্ধ্যায় আব্দুল্লাহপুর, মিরপুর, ফার্মগেইট ও মতিঝিলে আগুন দেয়া হয়েছে অন্তত চারটি গাড়িতে। কারা এ নাশকতা ঘটাচ্ছে, তাদের চিহ্নিত করা না গেলেও পুলিশ বলছে, বিরোধী দলের কর্মীরাই এতে জড়িত রয়েছে।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here